ঢাকা, শনিবার 16 December 2017, ২ পৌষ ১৪২৪, ২৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আপেল ও মুরগীর দামে পেঁয়াজ

স্টাফ রিপোর্টার : বাজারে এখন এক কেজি দেশী পেঁয়াজের দাম ১৩০ টাকা। এই দামে কেনা যাচ্ছে এক কেজি আপেল, ব্রয়লার মুরগি কিংবা পাঙ্গাশ জাতীয় বিভিন্ন মাছও। মওসুম থাকা সত্ত্বেও নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যটির দাম হু হু করে বেড়ে যাওয়া বিভিন্নভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ভোক্তারা। এদিকে চালের দামও বেড়েছে আরো একদফা। তবে সবজির সরবরাহ ভালো থাকায় কমেছে বেশকিছু সবজির দাম।
পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি নিয়ে কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টকশো, পরিবহন, বাসাবাড়িসহ সর্বত্রই সমালোচনা চলছে। অতিরিক্ত দামের কারণে ক্ষোভে অনেকে বিভিন্ন ধরনের স্ট্যাটাসও দিচ্ছেন ফেসবুকে।
পেঁয়াজের দাম নিয়ে সাংবাদিক আদিত্য শাহীন তার ফেসবুকে লিখেছেন, “বাজারের সব ঝাঁঝ গিয়ে পড়েছে পেঁয়াজে। অথচ আড়াই তিন মাস আগে মরিচ যে আসমানে উঠেছে, সে কথা আমরা ভুলেই গেছি। এখনও মরিচ ১২০ টাকা। পেঁয়াজের সমান সমান। বাজারে মাছ-গোশত মুরগির তুলনায় সবজির দাম বেশি।”
তিনি আরো লিখেন, “মাথাপিছু আয় বৃদ্ধির হিসাবটা আমাদের বেশ তুষ্ট করে। এ যেন ‘অর্ধেক দেহ আগুনে আর অর্ধেক দেহ বরফে রেখে নাতিশীতোষ্ণ’র সুখ। বিধাতাই জানেন, কোথায় চলেছি আমরা।”
ফরহাদ হোসাইন নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী তার ওয়ালে লিখেছেন, “এক কেজি আপেল ১৩০ টাকা, এক কেজি পেঁয়াজও ১৩০ টাকা। দেশের অর্থনীতির এই দুর্বার অগ্রগতি নিজ চোখে দেখে যাওয়ার সৌভাগ্য হলো।”
গতকাল শুক্রবার রাজধানীর বাজারে দেখা গেছে, প্রতি কেজি দেশী পেঁয়াজ খুচরা পর্যায়ে বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা দরে। আর আমদানি করা (ভারতীয়) পেঁয়াজ ৮৫ টাকা ও দেশী নতুন মওসুমের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৯০ থেকে ৯৫ টাকা দরে।
কিন্তু এক কেজি আপেল মানভেদে বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা দরে। ব্রয়লার মুরগি, পাঙ্গাশ ও হাইব্রীড কই মাছও পাওয়া যাচ্ছে কেজিপ্রতি টাকা ১২০ থেকে ১৩০ টাকা দরে। সেই হিসাবে ভোক্তাকে এক কেজি আপেল কিংবা ব্রয়লার মুরগির দামে কিনতে হচ্ছে এক কেজি পেঁয়াজ।
এদিকে কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, শীতের সবজি পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকায় দাম কিছুটা কমেছে। প্রতি কেজি বেগুন প্রকারভেদে ১০ টাকা কমে ৩০ থেকে ৪০ টাকা, পটল ১০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৩৫ টাকা, কচুর লতি ৪০ টাকা, লাউ প্রতি পিস ৪০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া প্রতি পিস ২০ টাকা, কাঁচামরিচ ১২০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, শিম ৩০ থেকে ৪৫ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, টমেটো ১২০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, শসা ৩০ থেকে ৪০ টাকা, মূলা ৩০ টাকা, নতুন আলু ২৫ টাকা, চিচিঙ্গা ৪০ টাকা, প্রতি পিস বাধাকপি ৩০ টাকা, প্রতি পিস ফুলকপি ৩০ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
প্রতি কেজি গরুর গোশত ৫০০ টাকা, খাসির  গোশত ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১৩৫ টাকা, লেয়ার মুরগি প্রতি পিস আকারভেদে ১৫০ থেকে ২২০ টাকা ও পাকিস্তানী মুরগি ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ