ঢাকা, শুক্রবার 22 December 2017, ৮ পৌষ ১৪২৪, ৩ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খাবারের সাথে অতিরিক্ত লবণ পরিহার সংক্রান্ত এ্যাডভোকেসী সভা

খুলনা অফিস : খাবারের সাথে অতিরিক্ত লবন পরিহার সংক্রান্ত খুলনা বিভাগীয় এ্যাডভোকেসী সভা গত মঙ্গলবার সকালে শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো ও খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. রওশন আনোয়ার। 

লবণের পরিমিত ব্যবহার ও ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের উপপরিচালক ডা. আবুল ফজল। 

অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন খুলনা স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক হোসেন আলী খোন্দকার ও সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক। 

স্বাগত বক্তৃতা করেন খুলনা স্বাস্থ্য দপ্তরের সহকারী প্রধান (এমআইএস) মোঃ জোবায়ের হোসেন।

এ্যাডভোকেসী সভায় বক্তারা বলেন, অতিরিক্ত লবণযুক্ত খাবার গ্রহণের ফলে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং কিডনি রোগের ঝুঁকি বাড়ে। আর এসব রোগে প্রতিবছর বিশ্বে এক কোটি ৭১ লাখ লোক মারা যায়। 

তাছাড়া আমাদের দেশে মানুষের মধ্যে খাবারে অধিক হারে লবন গ্রহণের ফলে হার্টব্লকের মত করোনারী রোগ দিন দিন অধিক হারে বেড়ে যাচ্ছে। যদি এখনই এসব বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করা না যায় তবে তা অচিরেই মহামারী আকার ধারণ করবে। 

বক্তারা বলেন, খাদ্যভ্যাসের পরিবর্তনের মাধ্যম স্বাস্থ্য ঝুঁকি হ্রাস করা সম্ভব। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের দিনে ৫ গ্রামের অতিরিক্ত লবন স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করে। সারা দিনে প্রতিটি ব্যক্তির জন্য যার পরিমাণ চা চামচের সমান সমান এক চা চামচ। 

পারিবারিক সচেনতার মাধ্যমে অতিরিক্ত লবন পরিহার করার অভ্যাস তৈরির জন্য বক্তারা উপস্থিত সকলকে আহ্বান জানান। সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা, ডাক্তার সহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ