ঢাকা, সোমবার 25 December 2017, ১১ পৌষ ১৪২৪, ৬ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চাঁদাবাজি মামলায় হাসপাতাল থেকে গ্রেফতার

রাজাপুর (ঝালকাঠি) সংবাদদাতা : ঝালকাঠির রাজাপুরের মেডিকেল মোড়ের জালিয়াবাড়ি ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় স্বামীকে আটকিয়ে রেখে গৃহবধূ ধর্ষণের আলোচিত ঘটনার সেই গৃহবধূর পঙ্গু স্বামী কামরুল হাওলাদার (২৭) কে চাঁদাবাজি মামলায় গ্রেফতার করেছে রাজাপুর থানা পুলিশ। পিরোজপুরের কাউখালি থানার ওই মামলায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাকে বরিশাল শেরে বাংলা হাসপাতালে পায়ের চিকিৎসা নিতে গেলে পুলিশ তাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করে। দিনমজুর কামরুল এক সপ্তাহ আগে গাছ থেকে পড়ে পায়ের গোড়ালী ভেঙ্গে পঙ্গু অবস্থায় বাসায় ছিলেন। কামরুল পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার উত্তর ভিটাবাড়িয়া গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে। তিনি রাজাপুর উপজেলা সদরের জালিয়া বাড়ি এলাকার মন্নান হাওলাদারের বাড়িতে ভাড়া থাকতো। রাজাপুর থানার ওসি সামসুল আরেফিন জানান, কামরুলের বিরুদ্ধে পিরোজপুর জেলার কাউখালি থানায় চাঁদাবাজি মামলা থাকায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাউখালি থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, গত ২ নভেম্বর কামরুলের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। সে পলাতক থাকায় তাকে পুলিশ খুঁজছিলো। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে তাকে কাউখালি থানা পুলিশ রাজাপুর থেকে তাদের থানায় নিয়ে যায় এবং পরে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। ২৯ নভেম্বর বুধবার বিকেলে ওই গৃহবধূ স্বামীকে আটকিয়ে রেখে উপজেলা শ্রমিককলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির ওরফে টাইগার মনিরসহ ও তার ২ সহযোগী ধর্ষণ করে এ ঘটনায় তাদের দুই সহযোগী স্বামীকে আটকিয়ে সহযোগীতা করে। এঘটনায় ৫ জনের নামে মামলা দায়ের করলে পুলিশ দু’জনকে গ্রেফতার করে কারাগারে গ্রেরণ করে এবং গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করে। এ মামলায় পুলিশ আর কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ