শুক্রবার ২১ মে ২০১০
Online Edition

কবিতা

সুন্দর কবিতার জন্য বিপ্লব ফারুক একটি সুন্দর কবিতার জন্য আমি পথ হাঁটি প্রতিদিন, কষ্টে বেঁচে থাকি- মুগ্ধ হয়ে প্রকৃতির মাঝে স্বপ্নে নামি সুন্দর কবিতা ভেবে মনে ছবি অাঁকি। কোথায় আমার কাঙ্ক্ষিত কবিতাখানা? আর কত যুগ অপেক্ষায় কেটে যাবে তোমাকে পাবার জন্য। পাখিদের ডানা আমার থাকতো যদি- কোথায় পালাবে খুঁজে খুঁজে বের করে আনতাম ছন্দে নেই বলে মৃত্তিকায় খুঁজতে খুঁজতে ক্লান্ত আমি পাবো কিনা ভুগছি দৈত্যদ্বনেদ্ব না পাবার ব্যক্ত কষ্টে পুড়তে পুড়তে আশায় বেঁধেছি বুক- তার পাবো দেখা সে আমার হবে সুন্দর কবিতা লেখা। চাঁদ ওঠে নতুন আশরাফ উদদীন আহমদ এতো কষ্ট কবিতার পাজরে, মাতাল সমীরণ বোঝে কি সে ভাষা? বাঁশঝাঁড়ের সবুজ পাতাগুলো একে একে খসে যায় সময়ের আর্ত্মনাদে, বিমর্ষ ডুমুর গাছে অন্ধকার শুধুই অ ন্ধ কা র অ ন্ধ কা র... বুকের গভীরে কষ্ট বৃক্ষ অক্টোপাস হয়ে জড়িয়ে ধরে, বাঁকা চাঁদ বোঝে না কৃষ্ণের লুকিয়ে রাখা রক্তক্ষরণ তারপরও কোথায় যেন বিষকাঁটালির ঝোঁপের ধারে একটা শিয়াল ডেকে ওঠে, কষ্ট শুধু দগ্ধ করে ভোরের আলো বেড়ার ফাঁকে হাতছানি দেয় অন্যস্বরে বুকের পাজর যায় ভেঙে যায় শীতের রাতের অহমিকায়, তারপরও তো চাঁদ ওঠে, রাতের পরে আরেক নতুন দিনের আমন্ত্রণে লুকোয় মেঘের শার্শি ধরে। পথ ওই মৃত্যুহীন মুহাম্মদ রেজাউল করিম যেতে হবে জানি কচ্ছপ লুকাই নরোম জলে পথ ওই দূরের বালুকণা জ্বলে ধীরে ধীরে বরফ গলে পর্দা টানে কে সম্মুখে কৃষ্ণ জলের টগবগ জল, পায়ে পায়ে পিঁপড়ার কামড় চোখে চোখে তৃষ্ণা পরম থেমে যাই হঠাৎ পর্বত ডাকে ডাকে ভূমি সমতল দাঁড়াই বারবার দাঁড়াই পথ ওই দূরের মৃত্যুহীন\

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ