ঢাকা, মঙ্গলবার 2 January 2018, ১৯ পৌষ ১৪২৪, ১৪ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় প্রাথমিকের ইংরেজি ভার্সন ও মাধ্যমিকের সেট ভিত্তিক বই পৌঁছেনি

খুলনা অফিস : খুলনায় প্রাথমিকের ইংরেজি ভার্সনের কোন বই পৌঁছেনি। একই সাথে মাধ্যমিকের ৮৫ শতাংশ বই পৌঁছালেও সেট ভিত্তিক বই সরবরাহ করা হয়নি। ইতোমধ্যে প্রাথমিকের বাংলা ভার্সনের বই শতভাগ পৌঁছেছে। তারপরও বইয়ের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা বর্তমানে সরবরাহ করা হবে না। তবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের সকল বই চলতি মাসের মধ্যে স্ব স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পৌঁছাবে বলে আশা করেছেন শিক্ষা কর্মকর্তারা।
জানা গেছে, খুলনা সদর থানাসহ ৯টি উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে এক হাজার ২৪৮টি। এ সকল প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিকের সর্বমোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুই লাখ ৬১ হাজার ৯০৯ জন। তাদের জন্য প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত বইয়ের চাহিদা রয়েছে ১১ লাখ ৪৬ হাজার ৬০৬টি। যার শতভাগ বই বর্তমানে সকল উপজেলার স্ব স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরবরাহ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে খুলনায় ইংরেজি ভার্সনের প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত দুই হাজার ৪১৬ জন শিক্ষার্থীর এ পর্যন্ত কোন বই আসেনি।
অপরদিকে খুলনায় মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা বিভাগের ১১টি উপজেলায় সর্বমোট বইয়ের চাহিদা ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৬৭৬টি। যার মধ্যে এ পর্যন্ত ১৯ লাখ ১৮ হাজার ৩৩টি বই জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক পাওয়া গেছে। আগামী ১ জানুয়ারি বই শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দেয়ার কথা রয়েছে। তবে এখনও সম্পূর্ণ বই প্রেস থেকে ছাপানো সম্পন্ন না হওয়ায় খুলনায় পৌঁছায়নি।
একইসাথে সকল যে বইগুলো পৌঁছেছে তাও শ্রেণির জন্য নির্ধারিত সেট ভিত্তিক নয়। আর এ কারণে কোন কোন উপজেলায় কোন কোন বিষয়ের বই এখনও মোটেই পায়নি বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, প্রাথমিকের প্রতি শিক্ষার্থীর প্রথম থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি পর্যন্ত জন্য তিনটি এবং তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ছয়টি বই নির্ধারিত রয়েছে। অপরদিকে মাধ্যমিকে ৬ষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ১৪টি এবং নবম ও দশম শ্রেণিতে ১৬টি করে বই বিনামূল্যে দেয়া হবে বলে জানা গেছে।
খুলনা জেলা শিক্ষা অফিসের বই প্রাপ্তি ও বিতরণের দায়িত্বে থাকা গবেষণা কর্মকর্তা রমেন রায় বলেন, খুলনায় ইতোমধ্যে মাধ্যমিকের ৮৫ শতাংশ বই পৌঁছেছে। তবে সকল বই সমপরিমাণ আসেনি। কোন কোন উপজেলায় কোন কোন বিষয় মোটেই পায়নি।
খুলনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রমেন্দ্রনাথ পোদ্দার বলেন, ইতোমধ্যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাহিদা মোতাবেক বই সরবরাহ করা হয়েছে। কিন্তু ইংরেজি ভার্সনের কোন বই এখনও আসেনি। তবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বইগুলো ইংরেজি ভার্সনের স্কুলগুলোতে পৌঁছাবে বলে জানান তিনি।
খুলনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খোন্দকার রুহুল আমিন বলেন, বই ছাপানোর কাজ প্রেসে সম্পূর্ণ শেষ হয়নি। এ কারণে যে বই আগে শেষ হয়েছে সেগুলো আগে দিয়ে দিয়েছে। সকল শ্রেণির বই সেট ভিত্তিক আসেনি বলেও জানান তিনি। তবে নির্ধারিত সময়ের ভেতরে সকল বই সেট ভিত্তিক পৌঁছে যাবে বলে আশা করেন এ কর্মকর্তা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ