ঢাকা, মঙ্গলবার 2 January 2018, ১৯ পৌষ ১৪২৪, ১৪ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় স্কুলের মাঠে যুবলীগ নেতার জুয়ার আসর

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর ফুলবাড়িগেট এলাকায় খানজাহান আলী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে চলছে জমজমাট জুয়ার আসর। প্রতিবন্ধী কল্যাণ ও পুনর্বাসন সংস্থার আয়োজনে গত ২২ ডিসেম্বর থেকে সেখানে মাসব্যাপী বিজয় মেলা শুরু হয়। কিন্তু মেলার নামে সেখানে চালানো হচ্ছে অশ্লিল নাচগান, হাউজি, চর্কিসহ বিভিন্ন ধরনের জুয়া। সন্ধ্যার পর থেকে স্কুলের মাঠটি চলে যাচ্ছে মাদকসেবীদের দখলে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, খুলনা জেলা পরিষদের সদস্য ও খানজাহান আলী থানা যুবলীগের সভাপতি সাজ্জাদুর রহমান লিংকনের অনুসারীরা এই জুয়া চালাচ্ছে। তাদের সহযোগিতা করছে খানজাহান আলী থান পুলিশ। স্কুল আঙ্গিনায় চলায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি ও অভিভাবকরা।
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নগরীর খানজাহান আলী থানা প্রতিবন্ধী কল্যাণ ও পুনর্বাসন সংস্থার উদ্যোগে মীরেরডাঙ্গা বালুর মাঠে বিজয় মেলার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়। সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. লোকমান হাওলাদারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৩টি শর্তে সেখানে মেলা চালুর অনুমতি দেয় কেএমপি। গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে এই মেলা শুরু হয়েছে।
সম্প্রতি মেলা ঘুরে দেখা গেছে, নামমাত্রই মেলা হচ্ছে সেখানে। মেলার আড়ালে মূলত জুয়া চালানোর জন্যই মাঠটি ভাড়া নেওয়া হয়েছে। মেলায় সন্ধ্যার পর থেকে হাউজি, চর্কা, গুটি, ওয়ানটেনসহ বিভিন্ন ধরনের জুয়া চলে গভীর রাত পর্যন্ত। সার্কাসের ঘরের প্যান্ডেলের পেছনে গোপন ঘরে দুটি জুয়ার বোর্ড বসানো হয়েছে। দুইটি বোর্ডে প্রতি রাতে হাজার হাজার টাকা হাত বদল হচ্ছে।
খানজাহান আলী থানা প্রতিবন্ধী কল্যাণ ও পুনর্বাসন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. লোকমান হাওলাদার জানান, মেলার মাঠ চালানোর জন্য মনির ভূইয়াকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি প্রতিদিন সংস্থাকে তিন হাজার করে টাকা দেন যেটা প্রতিবন্দিদের কল্যানে ব্যয় করা হবে। জুয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, এটা প্রশাসনের দেখার বিষয়। এ ব্যাপারে মনির ভূইয়া বলেন, লিংকন ভাই আপনার সঙ্গে কথা বলবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ