ঢাকা, বৃহস্পতিবার 4 January 2018, ২১ পৌষ ১৪২৪, ১৬ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে গোয়েন্দা পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান

চট্টগ্রাম অফিস : সিএমপি চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ কর্তৃক ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতির ঘটনায় ১১ পেশাদার ডাকাত গ্রেফতার এবং  লুণ্ঠিত টাকা, মোবাইলসেট ও ঘটনায় ব্যবহৃত ডিবি জ্যাকেট, ওয়্যারলেস সেট, খেলনা পিস্তল, হ্যান্ডকাপ, ২টি মোটর সাইকেল ও ১টি সিএনজি উদ্ধার হয়েছে। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের জনসংযোগ কর্মকর্তা জানান,গত ২৮ডিসেম্বর সিএমপি কোতোয়ালী থানাধীন লাভলেইন রোডস্থ কাদিয়ানি মসজিদের সামনে রাস্তার উপর হতে বিকাল অনুমান ৪.টার সময় ৩নং রুটে চলাচলরত টাউন সাভির্সের বাসের যাত্রী চট্টগ্রাম সিটি কলেজের অনার্সে অধ্যয়নরত ইমতিয়াজ উদ্দিন@ইমন (২২)কে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে গাড়ী হতে জোর পূর্বক নামিয়ে একটি সিএনজি‘তে তুলে নেয়। পরবর্তীতে তার নিকট ইয়াবা ট্যাবলেট আছে মর্মে অভিযোগ তুলে তার নিকট থাকা একটি কলেজ ব্যাগ তল্লাশীর নামে ছিনতাই করে নেয়, যাতে তার দুবাই প্রবাসী মামার প্রেরিত নগদ ১ লাখ ৬৭ হাজার টাকা, কলেজের বই খাতা ছিল এবং তার মানিব্যাগে রক্ষিত নগদ ১৩ শত টাকাসহ ব্যবহৃত ২টি মোবাইল সেটও ছিনাইয়া নেয়। পরবর্তী তাকে লাভলেইন হতে সিএনজিতে করে  সিআরবি পলোগ্রাউন্ড রাস্তায় নিয়া যায় এবং ব্যাগ ভর্তি টাকাসহ সিএনজিতে থাকা ১জন ডাকাত তার সহযোগী ২টি মোটর সাইকেলের ১টিতে উঠিয়ে নেয়। সিএনজিতি থাকা অপর ২ ডাকাত তাকে সিএনজি‘তে করে কদমতলী  হয়ে দেওয়ানহাট হতে ষ্টেশনগামী ফ্লাইওভারে উঠিয়ে মাঝামাঝি নির্জন রাস্তায় মারধর করে ফেলে দেয়। ইমতিয়াজ উদ্দিন সিএনজি‘র পিছনে পিছনে দৌড়  দিয়ে সিএনজির পিছনে থাকা বড় অক্ষরের নম্বর টুকে নিয়ে  তার আত্মীয়স্বজনকে জানায়।গত ২জানুয়ারি  ইমতিয়াজ উদ্দিন তার আত্মীয় স্বজনের সাথে প্রথমে ডিবি অফিসে হাজির  হয়ে মৌখিকভাবে বিষয়টি অবহিত করে। গোয়েন্দা বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বিষয়টির গুরুত্বের সাথে নেয় এবং তাকে কোতওয়ালী থানায় মামলার জন্য পাঠায়। গোয়েন্দা বিভাগ  চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি উদ্ঘাটনসহ প্রকৃত অপরাধীদের  গ্রেফতারের জন্য ২রা জানুয়ারী ও ৩রা জানুয়ারি    একটানা অভিযান চালিয়ে মহানগরীর বিভিন্ন থানা এলাকা হতে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের ১১ সদস্যদের গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতদের স্বীকারোক্তিমতে   ডাকাতির ঘটনায় ব্যবহৃত ১টি সিএনজি, ২টি মোটর সাইকেল, ১টি ওয়ারলেস সেট, ১জোড়া হ্যান্ডকাপ, ২টি ডিবি জ্যাকেট, ১টি ডামি পিস্তল, লুণ্ঠিত ২টি মোবাইল সেট ও লুণ্ঠিত টাকার মধ্যে ৩২হাজার ৫ শত টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।  ঘটনার বিষয়ে সিএমপি কোতোয়ালী থানার মামলা নং-৫ তারিখঃ ০২-০১-২০১৮ইং ধারা-১৭০/৩৯৫/৩৯৭দঃবিঃ রুজু হয় এবং তদন্ত প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচেছ-১) হারাধন দাশ@ধনি(৩৭) পিতা-অবিরত দাশ মাতা-মেরিদাশ স্ত্রী-জলি দাশ সাং-পদুয়া রাজারহাট, থানা-রাঙ্গুনিয়া জেলা-চট্টগ্রাম ; বর্তমানে-ফ্রিপোর্ট, বাহাদুর কলোনী, থানা-ইপিজেড জেলা-চট্টগ্রাম। ২) মোঃ মামুন উদ্দিন @ মামুন(৩৫) পিতা-নুরুল আলম, মাতা-মৃত মোমেনা খাতুন, সাং-পাইন্দং, হাইদ চকিয়া, ছমদ বাড়ী, থানা-ফটিকছড়ি জেলা-চট্টগ্রাম। বর্তমানে-০২নং গেইট মসজিদ গলি, জাহেদের ভাড়াটিয়া থানা-পাঁচলাইশ, চট্টগ্রাম। ৩) মোঃ কাইছার হামিদ @ রাজু(৩১) পিতা-আব্দুল মালেক মাতা-আনোয়ারা বেগম সাং-৩৯নং বাটালী রোড, এনায়েত বাজার, থানা-কোতোয়ালী, চট্টগ্রাম।  ৪) মোঃ জাহেদুল আজম (৩৫) পিতা-নুরুল ইসলাম, মাতা-হোসনেআরা বেগম স্ত্রী-শামীমা আক্তার সাং-উত্তর ধুরং, বাচামিয়া পেয়াদার বাড়ী, থানা-ফটিকছড়ি, জেলা-চট্টগ্রাম। বর্তমানে-ঝর্নাপাড়া কালু ড্রাইভারের বাড়ী, থানা-ডবলমুরিং, চট্টগ্রাম।  ৫) মোঃ শাহেদ রানা@সাহেদ(৩১) পিতা-মৃত গুলজার হোসেন মাতা-মৃত রাজিয়া বেগম, স্ত্রী-জহুরা বেগম সাং-কদমতলী রওশন মসজিদ লেইন, গুলজার হোসেন মিয়ার বাড়ী, থানা-সদরঘাট, চট্টগ্রাম।  ৬) মোঃ শওকত আলী @মানিক (৩২) পিতা-মোহাম্মদ আলী মাতা-রোকেয়া বেগম, সাং-বলির মসজিদ (লাষ্ট মাথা), হারুন বিল্ডিং, থানা-বাকলিয়া, চট্টগ্রাম। ৭) সেলিম মাহমুদ@সেলিম(৪৪) পিতা-মৃত হাজী নূর আহম্মদ মাতা-মৃত হাসিনা বেগম, স্ত্রী-বেবী আক্তার সাং-উত্তর ঘাটচেক, কশিনার বাড়ী, থানা-রাঙ্গুনিয়া জেলা-চট্টগ্রাম। বর্তমানে-চন্দ্রিমা আ/এ, ০১নং রোড, বাড়ি নং-২৮, ২য় তলা(ডান দিকে), থানা-চান্দগাঁও, চট্টগ্রাম। ৮) রেজাউল করিম(৫১) পিতা-মৃত আবুল কাশেম মাতা-রৌশন আরা, স্ত্রী-ফারজানা বেগম সাং-নোয়াপাড়া, চৌধুরী বাড়ী, কলেজের পশ্চিম পার্শ্বে, থানা-রাউজান, চট্টগ্রাম। বর্তমানে-৭৫৯ শুলকবহর আল আমিন রোড, থানা-পাঁচলাইশ, চট্টগ্রাম। ৯) মোঃ রুবেল (৩০) পিতা-মৃত জেবল হোসেন, মাতা-মৃত রমিজা খাতুন, স্ত্রী-শাহিনা আক্তার, সাং-সুন্দরপুর, ছোট ছিলনিয়া, আকবর হাজীর বাড়ী, থানা-ফটিকছড়ি জেলা-চট্টগ্রাম। বর্তমানে-অক্সিজেন জহির স্টোর, হাশেম কলোনী, থানা-বায়েজীদ বোস্তামী, চট্টগ্রাম। ১০) মোঃ জাসেদুল করিম @ বাবুল (৩৫) পিতা-মৃত ফজল করিম মাতা-নূর বেগম স্ত্রী-আসমা আক্তার সাং-ওখারা, সমিতির হাট. হংশ তালুকদার বাড়ী, থানা-ফটিকছড়ি জেলা-চট্টগ্রাম। ১১) মোঃ মাসুদ (২৮) পিতা-ফারুক মুন্সি, মাতা-সালমা বেগম, স্ত্রী-রেখা বেগম, সাং-পূর্ব চরমত, ০৯নং ওয়ার্ড, মতির বাপের বাড়ী, থানা-লালমোহন, জেলা-ভোলা। বর্তমানে-খরমপাড়া, খাজা রোড, শওকত এর ভাড়া ঘর, থানা-চান্দগাঁও, চট্টগ্রাম(সিএনজি চালক)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ