ঢাকা, শনিবার 6 January 2018, ২৩ পৌষ ১৪২৪, ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চিটাগং পুলিশ ইনস্টিটিউশনে কৃতী শিক্ষার্থীর সংবর্ধনা ও এসএসসি’১৮ বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন

চিটাগং পুলিশ ইনস্টিটিশনে কৃতী শিক্ষার্থীর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন পুলিশ কমিশনার ও বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ ইকবাল বাহার বিপিএম, পিপিএম -সংগ্রাম

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কর্তৃক পরিচালিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘চিটাগাং পুলিশ ইনস্টিটিউশন’ এর উদ্যোগে সিইসি’১৬, এসএসসি’১৭ এ জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা ও এসএসসি’১৮ এর বিদায় অনুষ্ঠান গত ২৩ নভেম্বর চট্টগ্রাম পুলিশ লাইনের প্যারেড ময়দানে সিএমপি মাল্টিপারপাস সেড এ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার ও বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ ইকবাল বাহার বিপিএম, পিপিএম।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতি: পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) দেবদাশ ভট্টাচার্য্য, অতি: পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) মাসুদ-উল-হাসান, অতি: পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম ও অপারেশন) সালেহ মোহাম্মদ তানভীর পিপিএম-সেবা, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) শ্যামল কুমার নাথ প্রমুখ।
প্রধান শিক্ষক মো. আখতার হোসেন সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভা শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা মোহাম্মদ জিয়াউল রহমান, গীতা পাঠ করেন শিক্ষক শ্রী সমীরণ আচার্য্য এবং ত্রিপিটক পাঠ করেন শিক্ষক রাজেষ বড়–য়া, মানপত্র পাঠ করেন ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী সায়মা আলম এবং গ্রহণ করে সাঈদা নাসরীন। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখে মংসানু মারমা (এসএসসি’১৮), মেহেদী রোমান (এসএসসি’১৭), অর্চি বড়–য়া (জেএসসি’১৬) ও খাদিজা সুলতানা মনি (সিইসি’১৬)।
শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান শিক্ষক মো. আখতার হোসেন এসএসসি পরীক্ষার্থীদের উত্তরোত্তর সাফল্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন এবং প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দর দাওয়াত গ্রহণ করে অনুষ্ঠানকে সুন্দর ও মহিমান্বিত করায় কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘শিক্ষাজীবন হচ্ছে মানুষের উৎকৃষ্ঠ সময়। এই সময়কে যে যথাযথভাবে কাজে লাগালে তারই সফলতার দ্বার উন্মোচিত হবে। স্কুল জীবনের এই বিদায় কষ্টের হলেও উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য রয়েছে একরাশ প্রত্যাশা। তিনি আরো বলেন এসএসসিতে কাঙ্খিত ফলাফল অর্জনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সুনাম অক্ষুণœœ রাখতে হবে।’ ‘স্কুল জীবনের শিক্ষার্থীদের এই প্রাপ্তি ক্ষুদ্র হলেও আগামীতে পথ চলায় তা পাথেয় হয়ে থাকবে। জীবনের সকল ক্ষেত্রে সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের এই প্রয়াস শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত করবে।
ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে আলোকিত মানুষ হয়ে জীবনের সকল ক্ষেত্রে এইভাবে কৃতিত্ব অর্জনে সচেষ্ট থাকতে হবে।’ প্রথম অধিবেশনের অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনের দায়িত্বে ছিলেন সিনিয়র শিক্ষক বেলাল উদ্দীন, উম্মে হাবীবা চৌধুরী, শিক্ষার্থী অর্ণব বড়–য়া, সান্দ্রিলা হাসান সাইরী। দ্বিতীয় পর্বে বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রণবদেব দাশ ও ইশিতা দাশের সঞ্চালনায় শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিশেষ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এতে প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ