ঢাকা, সোমবার 8 January 2018, ২৫ পৌষ ১৪২৪, ২০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ বাংলাদেশী নিহত ॥ আহত ১০

সংগ্রাম ডেস্ক : সৌদি আরবে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নয় বাংলাদেশী নিহত হয়েছে। রোববার দেশটির জিজান প্রদেশে বাংলাদেশ সময় ভোরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সৌদি প্রবাসী নিজামুল ইসলাম আমাদের সময়.কম কে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
নয় জন নিহতের পাশাপাশি এই দুর্ঘটনায় অন্তত আরও ১০ জন বাংলাদেশী আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ছয় জনের পরিচায় পাওয়া গেছে। তারা হলেন-সিরাজগঞ্জের দুলাল, কিশোরগঞ্জের জসিম, টাঙ্গাইলের সাইফুর রহমান, নরসিংদীর আমীর হুসাইনও ইদন এবং মতিউর রহমানের বাড়ি নারায়গঞ্জে।
 সৌদিতে কর্মরত একজন বাংলাদেশী জানিয়েছেন, তারা স্থানীয় ফাহাদ কোম্পানিতে ক্লিনার পদে কর্মরত ছিলেন। একটি পিকাআপ ভ্যানে করে কাজের যাওয়ার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে ৮জন ও হাসপাতালে নেয়ার পথে আরো ১জনের মৃত্যু হয়। এ সময় গাড়িতে ১৯ জন যাত্রী ছিল।
সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় এ ব্যাপারে বাংলাদেশী দূতাবাসের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
চীনে ট্যাংকার কার্গো জাহাজ সংঘর্ষে ২ বাংলাদেশীসহ নিখোঁজ ৩২ : এএফপির খবরে বলা হয়, গত  রোববার চীনের পূর্ব উপকূলে একটি তেলের ট্যাংকারের সাথে এক কার্গো জাহাজের সংঘর্ষের ঘটনায় ২ বাংলাদেশীসহ ৩২ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রণালয়। নিখোঁজ ব্যক্তিদের ৩০ জনই ইরানী নাগরিক বলেও মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়।
১ লক্ষ ৩৬ হাজার টন তেলবাহী ট্যাংকারটির শনিবার মধ্যরাতে কার্গো জাহাজের সাথে সংঘর্ষের পরপরই এতে আগুন লেগে যায়। নিখোঁজ সবাই ট্যাংকারটির নাবিক ছিলেন বলে প্রাথমিক সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে। কার্গো জাহাজটির ২৩ জন চীনা নাবিকদের প্রত্যেককে উদ্ধার করা হয়েছে।
চীনা সংবাদ মাধ্যমে প্রদর্শিত ভিডিওতে দেখা যায়, তেলবাহী জাহাটির আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য অগ্নি নির্বাপক দলকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। এছাড়া তীব্র তাপ ও ঘন কালো ধোঁয়া উদ্ধারকার্যকে ব্যাহত করছে।
পানামা-পতাকাবাহী ‘সাঁচি’ নামের ট্যাংকারটি ইরানী ‘গ্লোরী শিপিং’ কোম্পানির মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছিলো ও দক্ষিণ কোরিয়া যাচ্ছিলো। অন্যদিকে, হংকং-পতাকাবাহী কার্গো জাহাজটি ৬৪ হাজার টন শস্য বহন করছিলো বলে জানা যায়।
দুর্ঘটনার পরপরই চীন ৮টি উদ্ধারকারী জাহাজ ঘটনাস্থলে প্রেরণ করেছে। এছাড়া দক্ষিণ কোরিয়াও একটি বিমান ও কোস্টগার্ড জাহাজ সাহায্যের জন্য পাঠিয়েছে। আমাদের সময়.কম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ