ঢাকা, সোমবার 8 January 2018, ২৫ পৌষ ১৪২৪, ২০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাজমুল হুদাকে আত্মসমর্পণ করতে হচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টার : ঘুষ নেয়ার দুর্নীতি মামলায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল এ্যালায়েন্সের (বিএনএ) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে তার করা আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। ফলে বিচারিক আদালতে তার আত্মসমর্পনের আদেশ বহাল থাকলো। হাইকোর্টের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন দায়ের করতে হলফনামার জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছিলেন।
গতকাল রোববার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
আবেদনের পক্ষে নাজমুল হুদা নিজেই শুনানিতে অংশ নেন। দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।
দুদকের কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান জানান, এর ফলে ওই মামলায় নাজমুল হুদাকে আত্মসমর্পণ করতে হবে। হাইকোর্টের দেয়া আদেশে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।
গত ৮ নবেম্বর ঘুষ নেয়ার দুর্নীতির মামলায় নাজমুল হুদাকে চার বছরের কারাদন্ড দেন হাইকোর্ট। রায়ের অনুলিপি প্রাপ্তির ৪৫ দিনের মধ্যে তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়। একই মামলায় তার স্ত্রী
হাইকোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ হলে সেটা প্রাপ্তির ৪৫ দিনের মধ্যে তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পন করতে হবে। এ অবস্থায় ওই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন দায়ের করার জন্য হলফনামা করার অনুমতি চেয়ে নাজমুল হুদা আবেদনটি করেন। এই আবেদনের ওপর ২ জানুয়ারি শুনানি শেষে আপিল বিভাগ আদেশর জন্য ৭ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন।
নাজমুল হুদার পক্ষে এডভোকেট অন রেকর্ড আবেদনটি উপস্থাপন না করার কথা জানালে আদালত আবেদনটি উপস্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেন।
সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ও তার স্ত্রী সিগমা হুদার বিরুদ্ধে ২০০৭ সালের ২১ মার্চ দুদকের উপপরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম ধানমন্ডি থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় অভিযোগে বলা হয়, নাজমুল হুদা ও তার স্ত্রী সিগমা হুদার মালিকানাধীন সাপ্তাহিক পত্রিকা ‘খবরের অন্তরালে’র জন্য জনৈক মীর জাহের হোসেনের কাছ থেকে দুই  কোটি ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেন তারা।
জরুরি অবস্থার সময়ে ২০০৭ সালের ২৭ আগস্ট ঢাকার বিশেষ জজ আদালত মামলাটিতে নাজমুল হুদাকে সাত বছরের কারাদন্ড ও দুই  কোটি ৪০ লাখ টাকা জরিমানা করেন। তার স্ত্রী সিগমা হুদাকে তিন বছরের কারাদন্ড  দেয়া হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে ২০১১ সালের ২০ মার্চ নাজমুল হুদা ও সিগমা হুদা আপিল করলে তাদের খালাস  দেন হাইকোর্ট। পরে দুদক আপিল করলে ২০১৪ সালের ১ ডিসেম্বর খালাসের রায় বাতিল করে হাইকোর্টে পুনঃশুনানির নির্দেশ  দেন আপিল বিভাগ। গত বছরের ১৩ এপ্রিল আদেশ পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদনও খারিজ করে দেন সর্বোচ্চ আদালত। এরপর হাইকোর্টে এ মামলার পুনঃশুনানি শুরু হয়। যা ৮ নবেম্বর চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ