ঢাকা, মঙ্গলবার 9 January 2018, ২৬ পৌষ ১৪২৪, ২১ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বকশীবাজারের বিশেষ আদালতে খালেদা জিয়ার আরো ১৪ মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা আরো ১৪টি মামলা বিচারের জন্য রাজধানীর বকশীবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিশেষ এজলাসে স্থানান্তর করা হয়েছে।
গতকাল সোমবার আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের বিচার শাখা এ ব্যাপারে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জারি করা এই প্রজ্ঞাপনে সাক্ষর রয়েছে আইন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহার।
এদিকে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা ১৪টি মামলা রাজধানীর বকশীবাজারে বিশেষ এজলাসে স্থানান্তরের বিষয়ে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। উভয়পক্ষের নিরাপত্তার স্বার্থে মামলাগুলো সেখানে স্থানান্তর করা হয়েছে।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-২ এ বিচারাধীন শাহবাগ থানার ৫৩(২)০৮ মামলাটি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিশেষ এজলাসে স্থানান্তর করা হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, মামলাটি ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে পরিচালিত হলেও ভবনটিতে আরো অসংখ্য মামলার কাজ চলে। ফলে জনাকীর্ণ এই ভবনে নিরাপত্তাজনিত কারণে খালেদা জিয়ার মামলাটি সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।
একই কারণ দেখিয়ে তেজগাঁও থানার ২০(১২)০৭ নম্বর, ৫(৯)০৭ নম্বর, ১৫(০৮)১১ নম্বর এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়ের করা রমনা থানার ৮(৭)০৮ নম্বর মামলার কার্যক্রম স্থানান্তর করা হয়।
এ ছাড়া বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা দারুস সালাম থানার ৬২(১)১৫ নম্বর, ৩(৩)১৫ নম্বর, ৮(২)১৫ নম্বর, ৫(২)১৫, ৬(২)১৫, ৩১(২)১৫, ১২(২)১৫, ২৯(২)১৫ এবং যাত্রাবাড়ী থানায় দায়ের করা বিশেষ মামলা ৫৯(১)১৫ বকশীবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিশেষ এজলাসে স্থানান্তর করা হয়েছে।
প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়েছে, মহানগর হাকিম আদালত নম্বর-৭ এ বিচারাধীন পিটিশন মামলা ১০৯৬/১৬ এবং ১১০/১৫-এর বিচারকাজ এত দিন মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত ভবনে চলছিল। এই প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে মামলা দুটির কার্যক্রম বিশেষ আদালতে স্থানান্তর করা হলো।
আনিসুল হক বলেন, উভয় পক্ষের নিরাপত্তার জন্যই ওই আদালতে মামলা স্থানান্তর করা হয়েছে। পুরান ঢাকার জজকোর্ট প্রাঙ্গণ একটি জনবহুল ব্যস্ত এলাকা। সেখানে খালেদা জিয়ার যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায় না। এ কারণেই উভয়পক্ষের কথা চিন্তা করে এ মামলাগুলো আদালতে স্থানান্তর করা হয়েছে। এর পেছনে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই।
মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির উদ্দেশেই এই স্থানান্তর কিনা জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, মামলা আইন অনুযায়ী তার নিজস্ব গতিতে চলবে। দ্রুত নিষ্পত্তি করা বা দ্রুত খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়া সরকারের লক্ষ্য নয়। ন্যায়বিচার নিশ্চিত করাই সরকারের লক্ষ্য এবং বিচার বিভাগে সরকার কখনো কোনোভাবেই হস্তক্ষেপ করে না।
গতকাল সোমবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নিজ কার্যালয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। এর আগে আইনমন্ত্রী লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটের স্পিকারের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে আইনের শাসন, সুবিচার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানান আইনমন্ত্রী। এ ছাড়া লন্ডনে দুজন যুদ্ধাপরাধে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত চৌধুরী মঈনুদ্দীন ও আশরাফুজ্জামানকে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে প্রতিনিধিদলটির সহযোগিতা চেয়েছেন বলেও জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ