ঢাকা, মঙ্গলবার 9 January 2018, ২৬ পৌষ ১৪২৪, ২১ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকীতে বিএনপির সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার: দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সাপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। কর্মসূচির মধ্যে আছে, জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পন, আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা, রচনা প্রতিযোগিতা, দুঃস্থদের মধ্যে শীত বস্ত্র বিতরণ, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী। গতকাল সোমবার সকালে নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে যৌথসভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। যৌথ সভা শেষে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ঘোষক বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বীরোত্তমের ৮২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সাত দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। ১৮ জানুয়ারি থেকে এই কর্মসূচি শুরু হবে। ১৯ জানুয়ারি জিয়ার জন্মবার্ষিকীর দিন কেন্দ্রীয় ও সারাদেশে দলীয় কার্যালয়সমূহে ভোরে দলীয় পতাকা উত্তোলন ও সকাল ১০টায় শেরে বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হবে। ১৮ জানুয়ারি রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে দলের পক্ষ থেকে আলোচনা সভা হবে। জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন অঙ্গসংগঠন পোস্টার প্রকাশ করবে। জাতীয় দৈনিকে বিশেষ ক্রোড়পত্রও প্রকাশ করবে বিএনপি।
মুক্তিযোদ্ধা দল, যুব দল, স্বেচ্ছাসেবক দল, শ্রমিক দল, মহিলা দল, ডক্টরস এসোসিয়েশন, ছাত্র দলসহ অঙ্গসংগঠনসমূহ আলোচনা সভা, শ্রমিক শোভাযাত্রা, শীতবস্ত্র বিতরণ, রচনা প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শনীসহ নানা কর্মসূচি করবে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির পাশাপাশি জেলা-উপজেলা পর্যায়েও জিয়ার জন্মবার্ষিকী পালনের জন্য সকল ইউনিটকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান রিজভী।
 যৌথ সভায় সাবেক সংসদ সদস্য জয়পুরহাটের মোজাহার আলী প্রধান, নাটোরের শিংড়া পৌর মেয়র শামীম আল রাজী, চট্টগ্রামে উত্তরর কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান, ময়মনসিংহের ধুবাউডা‘র গোলাম রাব্বানী, বাগেরহাটের মিয়া আব্বাস উদ্দিনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করা হয়। 
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে যৌথ সভায় দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, শহিদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, নুরে আরা সাফা, এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম, রিয়াজুল ইসলাম রিজু, মীর সরফত আলী সপু, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, আশরাফউদ্দিন বকুল, রাশেদা বেগম হীরা, আবদুস সালাম আজাদ, জন গোমেজ, তাইফুল ইসলাম টিপু, শরীফুল আলম, অনিন্দ্র ইসলাম অমিত, আবদুল আউয়াল খান, মনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, ফরিদা মনি শহীদুল্লাহ, মাশেকুর রহমান, শাহিন শওকত, হারুনুর রশীদ, নাজিমউদ্দিন মাস্টার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অঙ্গসংগঠনের মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু, এ জি এম শামসুল হক, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, সাদেক খান, নুরুল ইসলাম খান নাসিম, মোস্তাফিজুর রহমান, রফিকুল ইসলম মাহতাব, হাফেজ আবদুল মালেক, শাহ নেসারুল হক, সুলতানা আহমেদ, হেলাল খান, আবদুল কালাম আজাদ, মোশাররফ হোসেন চৌধুরী, শাহ আলম রেজা, আসাদুজ্জামান আসাদ, মেজবুব মাসুম শান্ত, আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ