ঢাকা, বুধবার 10 January 2018, ২৭ পৌষ ১৪২৪, ২২ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বিএনপি ---ডা. শাহাদাত হোসেন

চট্টগ্রাম অফিস : গত সোমবার রাতে  চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু’র রেস্টুরেন্টে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সেক্রেটারি জেমস স্টোন, কানাডা সরকারের রাজনৈতিক কাউন্সিলর ব্যারি ব্রিস্টম্যান এবং কানাডা হাইকমিশনের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক উপদেষ্টা সৈয়দ শাহনাওয়াজ মোহসিনসহ ৩ সদস্যের প্রতিনিধি দলের সাথে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর, সহ-সভাপতি এডভোকেট মফিজুল হক ভূঁইয়ার সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। 

সৌজন্যে সাক্ষাতে কুশল বিনিময় করেন পরে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ  নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলেন। দীর্ঘ পৌনে ২ ঘন্টা সাক্ষাতে দেশের বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থা ও জাতীয় সংসদ নির্বাচন, নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা ইস্যুতে আলাপকালে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, নির্বাচন একটি প্রক্রিয়া, এই প্রক্রিয়ায় সকল দলের অংশগ্রহণের ভিত্তিতে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও নির্দলীয় নির্বাচনের মাধ্যমে একটি দেশের টেকসই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান নির্বাচন কমিশনকেই ভূমিকা রাখতে হবে। নির্বাচনকে কমিশনকে শক্তিশালী করে সকল ক্ষমতা অর্পণ করতে হবে। সরকার যদি হস্তক্ষেপ করে তাহলে সেই নির্বাচন হবে বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন একদলীয় নির্বাচন। এ সরকারের উপর জনগণের আস্থা নেই। বিগত সকল নির্বাচন গুলোতে তারা একদলীয়ভাবে ভোটকেন্দ্র দখল করে, ব্যালেট বক্স ছিনতাই করে ভোট নিয়েছে। এজন্য দরকার একটি সহায়ক সরকার। যার রূপরেখা ইতোমধ্যে বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দিয়েছেন। 

ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, বিএনপি নির্বাচনমুখী দল। নির্বাচন কমিশনকে সকলের অংশগ্রহণে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে হবে, যেখানে ভোটাররা নির্বিঘেœ তাদের ভোট প্রয়োগ করতে ভোট সেন্টারে যেতে পারবে। এ পরিবেশ নির্বাচন কমিশনকেই তৈরি করতে হবে। নির্বাচনের আগে সংসদ ভেংগে দিতে হবে। একটি নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করে টেকসই গণতন্ত্রের জন্য নির্বাচনের বিকল্প নেই বলে তিনি করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ