ঢাকা, শুক্রবার 12 January 2018, ২৯ পৌষ ১৪২৪, ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ছড়া-কবিতা

হরে দরে ছড়া

খালীদ শাহাদাৎ হোসেন

 

জটি বুড়ির ঘড়া

ঘড়ার ভিতর গড়াগড়ি হয়ে দরে ছড়া,

একটা মিঠে একটা তিতে একটা ভীষণ ঝাল

একটা নাকি তেঁতুল টক খেয়ে নাকাল গাল ।

 

একটা স্বাদে পানসে ভারী একটা বারভাজা

একটার ওজন যায় না মাপা বেঙের মত তাজা,

একটা সরু একটা মোটা একটা বাঁদুর ঝোলা

একটা রেগে ডিগবাজী খায় চড়ে নাগরদোলা।

 

একটা নরম একটা গরম একটা বেশি কড়া

এমন অনেক ছড়ার গুদাম জটি বুড়ির ঘড়া,

ঘড়ার ভিতরে আরো আছে তিন-তালের বড়া

আমসত্ত্ব পাটালী গুড় সবরি কলার ছড়া।

 

সেই ঘড়াটা হঠাৎ সেদিন হয়ে গেল গুম

জটি বুড়ি দিশেহারা হারাম রাতের ঘুম,

ছড়ার গায়ে লাগছে দারুন খরা

দুর্বোধ্য ছড়ার কলি যায় না মোটেই পড়া।

 

ছড়ার বাজার চড়া

কোথায় খুঁজে পেতে পারি জটি বুড়ির ঘড়া,

ছড়ার খোঁজে ছুটে এলাম নীল-সবুজের হাট

হেথায় ছড়ার ছড়াছড়ি র্হষে রাজ্যপাট।

 

আমার ইচ্ছে

ফরিদ আহমদ ফরাজী

 

ইচ্ছে করে লিখতে ছড়া লিখি

ইচ্ছে করে শিখতে ছড়া শিখি।

ইচ্ছে করে ডানা মেলে উড়ি

সাদা মেঘের ভেলায় বসে ঘুরি।

 

ইচ্ছে করে মায়ের কদম ছুঁয়ে

শিশির হয়ে পা দু'খানি ধুয়ে

গরম কাপড় গায় জড়িয়ে দেই

মায়ের দোয়া মুঠো ভরে নেই।

 

ইচ্ছে করে বাঁচার স্বপন দেখি

দুঃখীজনের কথা ছড়ায় লেখি

চাষীর সাথে আমন কাটতে যাই

সকাল সন্ধ্যা ধান নিয়ে কাটাই।

 

ইচ্ছে করে নদীর পাড়ে যাই

রাখাল হয়ে বাঁশের বীণ বাজাই

পাচন হাতে গো-ধেনু তাড়াই

গোধূলীতে আপন নীড়ে যাই।

 

ইচ্ছে করে নায়ের মাঝি হই

গাঁয়ের বধূ নাইয়োর করে লই

পাল তুলে দাও ডিঙি নায়ের মাঝি

আমার সাথে কে কে যেতে রাজি?

 

ইচ্ছে ঘুড়ি উড়ছে গগন জুড়ে

মেঘের শৈল ছাড়িয়ে আরো দূরে

দেশের জন্য করতে অনেক কিছু

ইচ্ছে ঘুড়ি ঘুরছে পিছু পিছু।

 

নতুন বছর

মুহাম্মাদ আলী মজুমদার

 

নতুন বছর বয়ে আনুক

শান্তি এবং সুখ

দূর করে দিক গরীব-দুঃখীর

মনের সকল দুখ।

 

নতুন বছর বয়ে আনুক

সাম্য ও সম্প্রীতি

হৃদয় থেকে দূর করে দিক

বেদনার সব স্মৃতি।

 

নতুন বছর দূর করে দিক

এই সমাজের কালো

দিকে দিকে দিক ছড়িয়ে

মানবতার আলো।

 

শীত সকালে 

মো.আব্দুল আলিম

 

শীত সকালে শীত

গাছের পাতায়

ফোঁটায় ফোঁটায়

হিমেল হাওয়ার হিম ।

 

শীত সকালে শীত

আকাশ পানে

শিশির বানে

শরীরটা ঝিমঝিম ।

 

শীত সকালে শীত

রোদের হাসি

সুখে ভাসি

মনটা নাচে খুব ।

 

শীত সকালে শীত

ফসল ক্ষেতে

হাওয়া খেতে

দিচ্ছি মধুর ডুব ।

 

বই-উৎসব

আব্দুস সালাম

 

নববর্ষের পয়লা দিনে

উচ্ছ্বসিত শিশু

পাঠশালেতে ছুটছে সবে

বই বিতরণ ইস্যু।

 

ভালোলাগে নতুন বইয়ের

শুকতে নতুন ঘ্রাণ

রঙিন বইয়ের মলাট দেখে

যায় জুড়িয়ে প্রাণ।

 

মনের সুখে পড়বে এখন

নতুন নতুন বই সবে

স্মৃতিগুলো থাকুক বেঁচে

পাচ্ছে যা এই শৈশবে।

 

রসের হাঁড়ি

মুখলেছুর রহমান আকন্দ

 

ঘন কুয়াশায় আবছা আঁধার

    শীতের আবেশ নিয়ে

অগ্রহায়ণ ছালাম জানায়

    নবান্নকে দিয়ে।

নবান্নতে হয় মিতালি

   খেজুর রসের হাঁড়ি

সেই রসে হয় ফিরনি পায়েশ

    সবার বাড়ি বাড়ি।

নতুন ধানের মুড়ি চিড়া

   ঝুলা খেজুর গুড়

কুটুম বাড়ি যাচ্ছে নিয়ে 

   থাকনা যতই দূর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ