ঢাকা, শুক্রবার 12 January 2018, ২৯ পৌষ ১৪২৪, ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৈয়দপুরে জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে যুবক ছুরিকাহত

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা: নীলফামারীর সৈয়দপুরে সোমবার দুপুরে অনলাইনে জুয়া খেলাকে  কেন্দ্র করে এক যুবক ছুরিকাহত হয়েছে। আহত যুবক শহরের ক্যান্টনমেন্ট রোড ফুলবাগার এলাকার ইদ্রিসের ছেলে যুবায়ের (১৮)। 

এলাকাবাসী জানায়, ক্যান্টনমেন্ট রোড সংলগ্ন এলাকায় মোবাইলে মাধ্যমে অনলাইনে জুয়া খেলার সময় একই এলাকার কাল্লু হোসেন নামে এক যুবকের সাথে যুবায়েরের কথা কাটাকাটি হয়। এসময় কাল্লু ছুড়ি দিয়ে যুবায়েরের পেটে কোপ মেরে পালিয়ে যায়। তার আতœ চিৎকার শুনে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করান। অবস্থার অবনতি ঘটায় উন্নত চিকিৎসার জন্য যোবায়েরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। 

সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসাতালের ভাবপ্রাপ্ত আরএমও আব্দুর রহিম জানান, যুবায়েরের শারিরিক অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে রংপুর মেডিকেলে পাঠানো হয়।

 সৈয়দপুর থানার ওসি মো: শাহজাহান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। যুবায়েরের পরিবারের পক্ষথেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভূমিহীন ব্যক্তিকে বাড়ি দেয়ার কথা বলে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভূমিহীন আরিফুল নামের একব্যক্তির কাছ থেকে ভূমিহীন হিসেবে বাড়ি বরাদ্দ দেয়ার কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ভূঞাপুর ইউএনও অফিসের কর্মচারী বায়জিদে বিরুদ্ধে। বর্তমানে বায়জিদ ডেপুটেশনে ফটোকপিয়ার হিসেবে গোপালপুর উপজেলায় কর্মরত রয়েছেন। 

জানা গেছে, উপজেলার পশ্চিম ভূঞাপুর গ্রামের আরিফুল ইসলামের পিতা মৃত সাইফুল ইসলাম তরফদারের নামে ভূমিহীন হিসেবে উপজেলা পরিষদ থেকে বাড়ি করে দেয়ার কথা বলে এক লাখ টাকা নিয়েছেন বর্তমানে ডেপুটেশনে গোপালপুরে ফটেকপিয়ার হিসেবে কর্মরত বায়জিদ। কিন্তু টাকা দেয়ার পরও ভূমিহীন হিসেবে বাড়ি না পাওয়ায় নিঃস্ব হয়েছে পরিবারটি। টাকা ফেরত চাওয়াতে তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে। এনিয়ে আরিফুল ইসলাম সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ভুক্তভোগি আরিফুল ইসলাম জানান, বায়জিদকে টাকা দিয়েও বাড়ি বরাদ্দ হয়নি বাবার নামে। 

এখন টাকা ফেরত চাইলে বিভিন্ন তালবাহান করছে। টাকাগুলো খরচ হয়েছে বলে বায়জিদ জানায়। এছাড়াও বিষয়টি প্রকাশ না করার জন্য আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে সে। 

বর্তমানে ডেপুটেশনে গোপালপুর ইউএনও অফিসের কর্মচারী বায়জিদ জানান, অভিযোগটি সত্য নয়। বাড়ি দেয়ার কথা বলে কারো কাছ থেকে কোন টাকা নেয়া হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ