ঢাকা, শনিবার 13 January 2018, ৩০ পৌষ ১৪২৪, ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাখালপাড়ায় ‘উগ্রবাদী আস্তানায়’ র‌্যাবের অভিযান ॥ নিহত ৩

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন নাখালপাড়া এলাকার একটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযানের পর ঘটনাস্থলে অস্ত্র ও রক্তের ছোপ -সংগ্রাম

# গ্রেনেড সুইসাইডাল ভেস্ট ও পিস্তল উদ্ধার
স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ায় ‘উগ্রবাদী আস্তানা’ সন্দেহে ঘিরে রাখা ‘রুবি ভিলায়’ অভিযানে তিন উগ্রবাদী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। এছাড়া র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। বাড়িটি থেকে গ্রেনেড, সুইসাইডাল ভেস্ট ও পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে বলেও র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
অভিযান শেষে র‌্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেন, বাড়িটির ভেতরে তিন ‘জঙ্গির’ লাশ পাওয়া গেছে। সম্ভবত তারা গ্রেনেডের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি বলেন, উগ্রবাদীরা জাহিদ নামের একটি জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে বাসাটি ভাড়া নেয়। তবে বাড়িতে আরো একটি জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। দুইটি পরিচয়পত্রের ছবি একই, কিন্তু নাম দুটি। আমাদের মনে হচ্ছে তারা ভুয়া আইডি কার্ড ব্যবহার করে বাসাটি ভাড়া নেয়। গত ৪ জানুয়ারি তারা জাহিদ পরিচয়ে বাসাটি ভাড়া নেয়। নিহতরা সবাই ২০-৩০ বছরের যুবক।
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, অভিযানে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। একজনের শরীরে গ্রেনেডের স্প্রিন্টার বিদ্ধ হয়েছে। দুইজনকেই হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
মুফতি মাহমুদ খান জানান, নাশকতার জন্য উগ্রবাদীরা নাখালপাড়ায় অবস্থান নিয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মধ্যরাতে রুবি ভিলায় অভিযান শুরু করে র‌্যাব। প্রথমে মেইনগেইট ভেঙে ফেলা হয়। পরে পুরো ভবনের ৬৫ বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়। অভিযানে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বেশ কয়েকজনকে আটক করে র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটা থেকে ১৩/১ পশ্চিম নাখালপাড়ার এই বাড়িটি ঘিরে অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
এর পর গতকাল শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে র‌্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল (বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট) ঘটনাস্থলে কাজ শুরু করে। ছয়তলা এই বাসাবাড়ির পঞ্চম তলায় মেস ছিল।
জঙ্গিরা সেখানে অবস্থান করছে- গোয়েন্দা সূত্রে এমন তথ্যের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে নাখালপাড়ার ওই বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাব। শুক্রবার বাড়িটিতে অভিযান চালানো হয়। ওই বাড়ির পঞ্চম তলায় কয়েকজন জঙ্গি রয়েছে বলে তারা জানতে পারেন। এক পর্যায়ে বাড়ির ভেতর থেকে গুলীবর্ষণ ও গ্রেনেড নিক্ষেপ করা হলে র‌্যাবও পাল্টা গুলী চালায়।
রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ায় ‘আত্মঘাতী’ হওয়া তিন জঙ্গি গত ৪ জানুয়ারি বাসাটি ভাড়া নেয়। ভাড়া নেয়ার সময় তারা ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র জমা দেয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব। ঘটনাস্থলে পাওয়া একটি ন্যাশনাল আইডি ও তার ফটোকপি দেখে র‌্যাব এই সন্দেহ প্রকাশ করেছে। 
সূত্র জানায়, নিহত তিন উগ্রবাদী একটি গ্রেনেড চুলার ভেতরে রেখে গ্যাস ছেড়ে দিয়েছিল। তারা এটি বিস্ফোরিত করতে চেয়েছিল বলে জানিয়েছেন র‌্যাব ডিজি। তিনি বলেন, ‘জঙ্গিরা চুলার ভেতরে গ্রেনেড রেখে গ্যাস ছেড়ে দিয়ে আগুন জ্বালাতে চেয়েছিল। আল্লাহর রহমতে তারা সেটা পারেনি।’
এদিকে শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে অভিযান শেষ হয়। র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ একথা জানিয়েছেন।
তিনি জানান, জঙ্গি আস্তানা থেকে তিনটি লাশ বের করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তেজগাঁও থানা পুলিশ লাশ তিনটির সুরতহাল করেছে। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ তিনটি সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জঙ্গিদের কক্ষটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।
সূত্র জানায়, রুবি ভিলা' নামের ওই বাড়িতে নিয়ে মোট চার বার অভিযান চালানো হলো। র‌্যাব ও পুলিশ এর আগে আরও তিনবার অভিযান চালানোর কথা জানিয়েছে। ২০১৩, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে সেখানে অভিযান চালানো হয়। আর বৃহস্পতিবার রাতের অভিযান নিয়ে মোট চার বার অভিযান চালানো হলো সেখানে। আগের অভিযানগুলোয় জামায়াত-শিবিরের বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ