ঢাকা, সোমবার 15 January 2018, ২ মাঘ ১৪২৪, ২৭ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আগৈলঝাড়ায় ডাক্তারের অবহেলায় স্বাস্থ্য সহকারীর মৃত্যু

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা: বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সের ডাক্তারের অবহেলায় এক স্বাস্থ্য সহকারির মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে উপজেলার সর্বমহলে ক্ষোভ ও শোকের ছায়া বিরাজ করছে। অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের কোদালধোয়া গ্রামের রাজবিহারী সরকারের ছেলে উপজেলা স্বাস্থ্য সহকারী রামানন্দ সরকার (৪০) গত ৮ জানুয়ারী রাতে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়লে ওই দিন ভোর রাতে তাকে আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। তখন ডিউটিরত ডাক্তার আব্দুল্লাহ আল-মামুন রোগীকে চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি দেয়। পরবর্তীতে ৯ জানুয়ারী মঙ্গলবার রামানন্দ সরকারের অবস্থার অবনতি হলে তার পরিবারের লোকজন ডিউটিরত ডাক্তার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আলতাফ হোসেনকে বারবার ডাকতে গেলেও তিনি রোগিকে সারা দিনে একবারও দেখতে আসেনি বলে রোগীর পরিবারের অভিযোগ। রাতে অন্য ডাক্তার তানভির আহম্মেদ ডিউটিতে এসে রোগির আবস্থা গুরুতর দেখে তাৎক্ষনিক ভাবে রাত আনুমানিক ১১টার দিকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরন করেন। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় চিকিৎসারত অবস্থায় রামানন্দ মারা যায়। রোগীর পরিবারের দাবি ডা.আলতাফ হোসেন রোগীকে দেখতে গেলে কিংবা তাকে সকালেই বরিশাল শেবাচিমে প্রেরণের ব্যবস্থা করলে হয়তো রামানন্দ মারা যেতনা। তার পরিবার আরো অভিযোগ করেন ডাক্তার ও নার্সদের অবহেলার কারনেই রোগী রামানন্দ সরকারের অকাল মৃত্যু হয়েছে।
এব্যাপারে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক বলেছেন রোগিকে আরো আগে আনা হলে সে মারা যেতনা। এব্যাপারে অভিযুক্ত ডাক্তার আলতাফ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত মঙ্গলবার উপজেলার সকল স্বাস্থ্য সহকারীদের নিয়ে মিটিং ছিলো তখন উপস্থিত স্বাস্থ্য সহকারীরা আমাকে বলেনাই যে রামানন্দ হাসপাতালে ভর্তি। তার বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন রোগীর কোন আত্মীয়স্বজন আমার কাছে আসে নাই।
এ ব্যাপারে  বরিশাল সিভিল সার্জন ডা. মনোয়ার হোসেন বলেন, স্বাস্থ্য সহকারী রামানন্দ সরকার বরিশাল মেডিকেলে ভর্তি হবার পরে আমাকে ডা.আলতাফ হোসেন জানিয়েছে। আমি খবর নিয়ে দেখি সে মারা গেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ