ঢাকা, মঙ্গলবার 16 January 2018, ৩ মাঘ ১৪২৪, ২৮ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ নারী ও শিশুসহ তিন জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : শীত তাড়ানোর জন্য আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ হওয়া নারী ও শিশুসহ তিন জনের মৃত্যু হয়েছে রোববার। রাজধানীর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন তারা। মারা যাওয়া দুই নারী হলেন গোপালগঞ্জের লোকজান বেগম (৬০) ও চাঁদপুরের খাদিজা বেগম (৩০)। এছাড়া ৮ বছরের শিশু সাবিনা থাকতো আশুলিয়ায়।
পরিবারের আবেদনের ভিত্তিতে বিনা ময়নাতদন্তে তাদের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করেছে পুলিশ। এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রবিউল ইসলাম। তিনি জানান, মৃতের স্বজনদের আবেদন ও ঘটনাস্থলের সংশ্লিষ্ট থানার অনুমতি সাপেক্ষে মৃতদেহগুলো স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
খাদিজা বেগমের (৩০) স্বামীর নাম শাহাদাত হোসেন। তাদের এক ছেলে ও দুই মেয়ে আছে। স্বজন মো. জাকির হোসেন জানান, গত ৪ জানুয়ারি বিকালে হাজীগঞ্জ উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামে নিজের বাড়িতে গ্যাসের চুলায় আগুন পোহাতে গিয়ে কাপড়ে আগুন লেগে দগ্ধ হন খাদিজা। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন ৫ জানুয়ারি নিয়ে আসা হয় ঢামেক হাসপাতালে। সেখানে রোববার দুপুরে মারা যান তিনি।
খাদিজার মতো গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি উপজেলায় নিজের বাসায় চুলায় আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ হন লোকজান বেগম। উপ-পরিদর্শক (এসআই) রবিউল ইসলাম জানান, গত ৯ জানুয়ারি রাজু নামে এক স্বজন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করান। রোববার দুপুর ১১টা ৫০ মিনিটে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 
এদিকে বগুড়া সোনাতলা উপজেলার রানীপাড়া ফেরিঘাট এলাকার রহিদুল ইসলামের মেয়ে সাবিনা পরিবারের সঙ্গে থাকতো আশুলিয়ায়। সেখানকার বাডবাগান এলাকায় গত ৫ জানুয়ারি সকালে বাসার সামনে আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ হয় শিশুটি। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়।
আগুনে পুড়েছে চুড়ির কারখানা
কামরাঙ্গীরচরের একটি চুড়ির কারখানা আগুনে পুড়ে গেছে। আগুনে কেউ হতাহত হয়নি।
কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি শাহিন ফকির বলেন, গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে মজিবরঘাট এলাকায় একটি টিনশেড ভবনে চুড়ির কারখানায় আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস গিয়ে আগুন নেভায়। আশপাশের অন্য কোনো টিনশেডে আগুন না ছড়ালেও আগুনে ওই চুড়ির কারখানাটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে আগুন লাগার কোনো কারণ জানা যায়নি বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।
রিজার্ভ ট্যাংক বিস্ফোরণে দগ্ধ ২
বনানী এলাকায় রিজার্ভ ট্যাংক পরিষ্কারের সময় বিস্ফোরণ হয়ে দুইজন দগ্ধ হয়েছেন। গতকাল সোমবার বিকেল ৩টার দিকে এলাকার ২৩ নাম্বার রোড, ব্লক-এ দ্বিতীয় তলার একটি বাড়ির নিচ তলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। দগ্ধরা হলেন- আল-আমিন (৩০), ও জসিম (৪০)। তারা দু’জনেই উত্তরা মেম্বার বাড়ি এলাকায় থাকেন বলে জানা গেছে।
দগ্ধদের বরাত দিয়ে ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, ওই বাড়ির রিজার্ভ ট্যাংক পরিস্কারের সময় হঠাৎ বিস্ফরণ হয়ে ওই দুই ব্যক্তি দগ্ধ হন। তাদের ঢামেক কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।
ঢামেক মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটের দায়িত্বরত চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, আল-আমিনের ৯৮ শতাংশ ও জসিমের ৯৯ শতাংশ শরীর ঝলসে গেছে।
মোটরসাইকেল চোর চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার
তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলের বেগুনবাড়ি এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- মো. ইউনুস (৪৫) ও আশরাফুল (২২)।
 তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি মো. আব্দুল রশিদ বলেন, অভিযান চালিয়ে বেগুনবাড়ি এলাকা থেকে পেশাদার মোটরসাইকেল চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন তাদের চুরি করা মোটরসাইকেল উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।
পুলিশ জানায়, কিছুদিন আগে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকা থেকে ৩/৪টি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। এ পরিপ্রেক্ষিতে থানায় মামলা করা হয়। এরপর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারদের এ মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ