ঢাকা, বুধবার 17 January 2018, ৪ মাঘ ১৪২৪, ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাঁশখালী কালিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠানের সমাপনী

মোঃ আব্দুল জব্বার, বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) : স্কুলের ছাত্রদেরকে সনদ নির্বর শিক্ষায় গুরুত্ব না দিয়ে ক্রিয়েটিভ মানষিকতায় উৎসাহিত করতে হবে, মেধা ও মননে ছাত্র ছাত্রীদেরকে আগামীর সুনাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হলে “ছাত্র ছাত্রীদেরকে মাদক, ইভটিজিং, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ কে না বলতে হবে।” শুধু  সুশিক্ষায় শিক্ষিত হলে হবে না, ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে আধুনিক - উন্নত দেশের রূপকল্প বাস্তবায়নে ছাত্র ছাত্রীদেরকে আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কারিগরী শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে দক্ষ জনশক্তি হিসাবে গড়ে তোলতে হবে।
১৩ জানুয়ারি, শনিবার বিকাল ৫টার সময় চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলার কালিপুর এজাহারুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের ২ দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য হীরক জয়ন্তী উৎসবের সমাপনী দিবসে প্রধান অথিতির বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচীব ডঃ মাহমুদুল হক তার সারগর্ভ প্রাঞ্জল এক বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের সভাপতি নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে মহাসচীব অধ্যক্ষ আ,ন,ম সরওয়ার আলমের সঞ্চালনায় উৎসবের ২য় দিনের সমাপনী উৎসবে বিশেষ অথিতি ছিলেন, বাঁশখালী থানা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান মোল্লা, লেখক-গবেষক ও সাবেক বিটিভি প্রযোজক বেলাল বেগ, বাংলা নিউজ টুয়েন্টি ফোর ডট কমেরর ব্যুরো প্রধান তপন চক্রবর্তী, লেখক-সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মি শওকত বাঙ্গালি, শিল্পপতি নুরুল আলম, মনিরুল আলম আজাদ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ইসতেয়াক আহমেদ, ইউপি চেয়ারম্যান আ.ন.ম শাহাদত আলম, বাঁশখালী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল গফুর, জলদী আধুনিক হসপিটালের পরিচালক এস.এম. শোয়াইবুর রহমান ও আওয়ামী লীগ নেতা সরওয়ার কামাল, মোজাফ্ফর আহমদ প্রমুখ।
সমাপনী উৎসবের প্রথম পর্বে অবসর প্রাপ্ত শিক্ষকদের সংবর্ধনা, ক্রেস্ট ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী দিয়ে সম্মানিত করা হয়, এরপর ১৯৪২ সাল থেকে স্কুলের বিভিন্ন ব্যাচের ছাত্র ছাত্রীদের পারফরমেন্স বিবেচনায় ব্যাচভিত্তিক মেধা যাছাই করে পুরস্কৃত করা হয়। স্পন্সর প্রতিষ্ঠানদেরও পরিষদের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হয়, সমাপনী দিবসের দ্বিতীয় পর্বে দেশ বরেণ্য সংগীত শিল্পী হাছানের পরিবেশনাসহ বিভিন্ন শিল্পীদের অংশগ্রহণে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান স্কুলের প্রাক্তন ও বর্তমান হাজার হাজার ছাত্র ছাত্রী এবং এলাকাবাসী দির্ঘদিন মনে রাখার মতই ছিল সার্বিক ব্যাবস্থাপনা। ২ দিনব্যাপী উৎসবের বিভিন্ন পর্বে প্রযুক্তির শৈল্পিক প্রদর্শন ও উপাস্থাপনা সাধারণ জনতার পাশাপাশি অনুষ্ঠানে আগত বিভিন্ন পর্যায়ের অথিতিদেরও চমকে দিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ