ঢাকা, বৃহস্পতিবার 18 January 2018, ৫ মাঘ ১৪২৪, ৩০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই হামলা করা হয়েছে -আইভী; সংঘর্ষ হয়েছে আইভী বনাম হকারদের -শামীম ওসমান

স্টাফ রিপোর্টার ও নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন,  মঙ্গলবার যে হামলা হয়েছে সেটা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই করা হয়েছে। আমার নিকট আত্মীয় ভাই, ভাগ্নে ও ভগ্নিপতিসহ কাছের নেতাকর্মীদের মুখ দেখে দেখে হামলা করা হয়েছে। ইটবৃষ্টি ঝড়ানো হয়েছে। আমি এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেবো। গতকাল বুধবার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
আইভী বলেন, ‘হকারদের উচ্ছেদ ঘটনাটি শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও স্থানীয় সংসদ সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে আমরা বিকল্প ব্যবস্থার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্তু, এরইমধ্যে ৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান অযাচিতভাবে হকার বসানোর ঘোষণা দিয়ে পরিবেশকে উত্তপ্ত করে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটিয়েছে।’
জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও পুলিশ সুপারকে (এসপি) প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় থেকে আইভি বলেন, ‘প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তার কারণেই এই হামলা হয়েছে। যখন আমার ওপর ইটবৃষ্টি ঝড়ানো হচ্ছিল তখন পুলিশ কোথায় ছিল? এমন বিষয় ঘটতে পারে তা জানিয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদেরকে সাবধানও করা হয়নি।’
এদিকে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেন, মঙ্গলবার যে ঘটনা ঘটেছে তা আমার সঙ্গে সেলিনা হায়াৎ আইভীর নয়। এটি সেলিনা হায়াৎ আইভী বনাম হকারদের। গতকাল বুধবার বিকালে নারায়ণগঞ্জে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
শামীম ওসমানের ভাষ্য, ‘আমাকে ফোন করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ঘটনাস্থলে যেতে বলেন, তাই আমি সেখানে গিয়েছি। আমি না গেলে গতকাল সেখানে অনেকের অস্তিত্ব থাকতো না। আমি যাওয়ার পর সেখানে কোনও ঘটনা ঘটেনি। একটা ইটও পড়েনি।’
আওয়ামী লীগের এই রাজনীতিবিদের দাবি, ‘প্রধানমন্ত্রী নিজেই হকারদের পুনর্বাসন করতে বলেছেন আগে। তারপর উচ্ছেদ করতে বলেছেন।’ এরপর তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘তাদের পুনর্বাসন না করে কেন উচ্ছেদ করা হচ্ছে?’
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে ইঙ্গিত করে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি এখানে গরিব মানুষের জন্য রাজনীতি করি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাদের জন্য রাজনীতি করে যাবো।’
ফুটপাতে হকার বসানোকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) বিকালে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া এলাকায় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ শতাধিক মানুষ আহত হন। এদিন দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষের ঘটনায় পুরো এলাকা পরিণত হয় রণক্ষেত্রে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ দুই শতাধিক রাউন্ড ফাঁকা গুলী ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে।
এদিকে ফুটপাতে হকার বসানো নিয়ে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের দ্বন্দ্বে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনার পর নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের এই দুই প্রভাবশালী নেতাকে ঢাকায় ডেকে পাঠানো হয়েছে।
ফুটপাতে হকার বসানো নিয়ে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের দ্বন্দ্বে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনার পর নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের এই দুই প্রভাবশালী নেতাকে ঢাকায় ডেকে পাঠানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর ফুটপাতে হকার বসানোকে কেন্দ্র করে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এসময় মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার  বিকালে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘষের ঘটনায় নগরীর চাষাঢ়া এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলী ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ