ঢাকা, বৃহস্পতিবার 18 January 2018, ৫ মাঘ ১৪২৪, ৩০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতার ওপর অত্যাচারের স্টিমরোলার চালানো হচ্ছে

দৈনিক সংগ্রামের ৪৩তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী -সংগ্রাম

সিলেট ব্যুরো : সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, গণতন্ত্র আজ প্রশ্নবিদ্ধ। স্বৈরশাসকের মতো আমাদের নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতার ওপর অত্যাচারের স্টিমরোলার চালানো হচ্ছে। স্বাধীন দেশের সাংবাদিকরা আজ পরাধীন। এদেশে মুক্তিযোদ্ধাদের স্বপ্নও বাস্তবায়িত হয়নি। উন্নয়নের মহাসড়কের কথা বলে জনগণের সাথে প্রতারণা করা হচ্ছে। মেয়র বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার পরিণাম কখনো ভালো হয় না। সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন করা হয়, পিস্তল উঁচিয়ে সন্ত্রাসীরা সাংবাদিকদের ধাওয়া করে। কারা এসব বিষয়ের সাথে জড়িত জনসম্মুখে তা প্রকাশ করা দরকার।
তিনি গতকাল বুধবার বিকেলে দৈনিক সংগ্রামের ৪৪তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সিলেট প্রেস ক্লাবের আমীনূর রশীদ চৌধুরী মিলনায়তনে সিলেট ব্যুরো আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
দৈনিক সংগ্রামের সিলেট ব্যুরো প্রধান কবির আহমদের সভাপতিত্বে ও সিলেট প্রেস ক্লাবের পাঠাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক খালেদ আহমদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির বলেন, দৈনিক সংগ্রাম ৪৩ বছর ধরেই তাদের ঐতিহ্যের সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর অপতৎপরতার বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি।
সিলেট প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ বলেন, একের পর এক সংবাদপত্র ও টেলিভিশন চ্যানেল বন্ধ করে দিয়ে সাংবাদিকদের স্বাধীনতাকে হরণ করা হয়েছে। বিশেষ করে দৈনিক আমার দেশ এর বিরুদ্ধে যে অন্যায় করা হয়েছে তা দেশের ইতিহাসে নজিরবিহীন।
দৈনিক জালালাবাদের নির্বাহী সম্পাদক আবদুল কাদের তাপাদার বলেন, সংবাদপত্রের কাজ হলো পথ দেখানো। দৈনিক সংগ্রাম আদর্শের মশাল জ্বালিয়ে ঠিকে আছে এখনো। ৪৩ বছরেও সংগ্রাম তার আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়নি। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করে মানবতার জয়গান গেয়ে যাচ্ছে দৈনিক সংগ্রাম।
সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি এম এ হান্নান, দৈনিক কাজিরবাজারের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ সুজাত আলী, বাংলা টিভির ব্যুরো প্রধান আবু তালেব মুরাদ, সিলেট সংস্কৃতি কেন্দ্রের পরিচালক জাহেদুর রহমান চৌধুরী ও সিলেট মহানগর ইমাম সমিতির সভাপতি হাবিব আহমদ শিহাব।
অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক জালালাবেদর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আজিজুল হক মানিক, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি আতাউর রহমান আতা, দৈনিক মুক্তখবরের ব্যুরো প্রধান মো. ফয়ছল আলম, দৈনিক সিলেটের ডাকের সিনিয়র রিপোর্টার এম আহমদ আলী, দৈনিক কাজিরবাজারের বার্তা সম্পাদক সোয়েব বাসিত, সাংবাদিক আহমদ মারুফ, এনটিভির সিলেট প্রতিনিধি মারুফ আহমদ, বাসসের জেলা প্রতিনিধি শুয়াইবুল ইসলাম, দৈনিক সিলেট বাণীর স্পোর্টস রিপোর্টার মো. মনির আহমদ, সাংবাদিক মো. মারুফ হাসান, সিলেট শিক্ষাবোর্ড সিবিএ এর সেক্রেটারি মো. তাজুল ইসলাম, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিরর পদপ্রার্থী কফিল উদ্দিন আলমগীর, ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী সৈয়দ মো. আব্দুল্লাহ, জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সুরমান আলী, রেলওয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইউনুছ আলী, ফটো সাংবাদিক মো. আব্দুল মোমিন ইমরান, ইদ্রিছ আলী, ফয়ছল আহমদ রানা, দৈনিক সংগ্রামের দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি খায়রুল আমিন রাফসান প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ