ঢাকা, বৃহস্পতিবার 18 January 2018, ৫ মাঘ ১৪২৪, ৩০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

উত্তরা আধুনিক মেডিকেলে ৫৭ জনের ভর্তিতে বাধা নেই

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে সাধারণ কোটায় ভর্তিকৃত ৫৭ শিক্ষার্থীর একাডেমিক কার্যক্রমে বাধা নেই। এ ছাড়া মেধা তালিকায় নাম থাকার পরও ভর্তির সুযোগ না পাওয়া এক শিক্ষার্থীকে (রিটকারীর ছেলে) সাত দিনের মধ্যে ভর্তির সুযোগ দিতে কলেজ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
গতকাল বুধবার একটি আবেদনের শুনানি শেষে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আব্দুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এই আদেশ দেন।
এর আগে গত রোববার ৫৭ শিক্ষার্থীর ভর্তি কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা জারির হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে করা আবেদনে ‘নো অর্ডার’ করে শুনানির জন্য নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়েছিলেন আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। এর ধারাবাহিকতায় এই বিষয়ে শুনানি হয় আপিল বিভাগে।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এ এম আমিনউদ্দীন। উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার ফজলে নুর তাপস।
এর আগে, গত ৯ জানুয়ারি রাজধানীর উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে সাধারণ কোটায় ভর্তিকৃত ৫৭ শিক্ষার্থীর একাডেমিক কার্যক্রমে ৩০ দিনের নিষেধাজ্ঞা জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ‘আগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ’ ভর্তি প্রক্রিয়া কেন অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ১০ দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ও উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষকে বিশেষ বার্তা বাহকের মাধ্যমে রুলের জবাব দিতে বলা হয়।
রাজধানীর উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ গত ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে মেধা স্কোর অনুযায়ী শিক্ষার্থী ভর্তি না করে ‘আগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ’ ভর্তির জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ১৭ ডিসেম্বর বেলা ১১টার মধ্যে ‘আগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ’ পাবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়। ওইদিন বেলা ১১টার পর তারিকুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী (যার মেধা স্কোর ২৫৭) কলেজে গিয়ে জানতে পারে ইতোমধ্যেই ৫৭ শিক্ষার্থীর ভর্তি সম্পন্ন হয়েছে। ভর্তির সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ২৫০.৪৫। তারিকুল ইসলামের দাবি মেধাস্কোর অনুযায়ী ভর্তি করলে সে ভর্তির সুযোগ পেত।
পরে গত ২ জানুয়ারি তার বাবা নজরুল ইসলাম আধুনিক মেডিকেল কলেজের এ ভর্তি পদ্ধতি চ্যালেঞ্জ করে রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে ওই আদেশ দেন আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ