ঢাকা, বৃহস্পতিবার 18 January 2018, ৫ মাঘ ১৪২৪, ৩০ রবিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় তিনটি চোরাই ইজিবাইকসহ চোর সিন্ডিকেটের তিন সদস্য গ্রেফতার

খুলনা অফিস : খুলনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে তিনটি চোরাই ইজিবাইকসহ চোর সিন্ডিকেটের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ডুমুরিয়া উজেলার চুকনগর এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।
পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডুমুরিয়া থানাধীন চুকনগর এলাকায় ১৫ জানুয়ারি গভীর রাত থেকে ১৬ জানুয়ারি দুপুর পর্যন্ত অভিযান চালায়। এ সময় উক্ত এলাকা থেকে ইজিবাইক চোর সিন্ডিকেটের হোতা চুকনগর এলাকার আজগার আলী গাজীর ছেলে জুলফিকার আলী গাজী ওরফে খোকন গাজী, একই এলাকার খোরশেদের ছেলে মিলন, ও আজব আলী খানের ছেলে রবিউল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের হেফাজত থেকে তিনটি চোরাই ইজিবাইক উদ্ধার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্য মতে অন্যান্য ইজিবাইক চোরদের গ্রেফতার ও আরো চোরাই ইজিবাইক উদ্ধার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ ব্যাপারে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।
কারারক্ষীর ওপর হামলা
খুলনা জেলা কারাগার চত্বরে শাহ আলম (৪২) নামের এক মাতাল কর্তৃক কারারক্ষীর ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় হামলাকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বেলা পৌনে ২টার দিকে কারাগারের সাক্ষাৎ টিকিট প্রাপ্তি স্থানে এ ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনার আকস্মিকতায় তাৎক্ষণিক আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শাহ আলম নামের ওই ব্যক্তি জেলা কারাগারে কোন এক বন্দীর সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য টিকিট সংগ্রহ করতে যায়। এক পর্যায়ে কোন কারণ ছাড়াই আকস্মিকভাবে সে কারারক্ষী মাহবুবের ওপর চড়াও হয়। এ সময় অন্যান্য কারারক্ষীরা তাকে নিবৃত করার চেষ্টা করলে সে আরও হিং¯্র হয়ে ওঠে। এ সময় তার মুখ থেকে প্রচ- মদের গন্ধ বের হচ্ছিল। পরে পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।
খুলনা কারাগারের সুপার মো. কামরুল ইসলাম বলেন, হঠাৎ চিৎকার শুনে তিনি এগিয়ে গিয়ে দেখতে পান জনৈক ব্যক্তি কারারক্ষীর ওপর হামলা করছে। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে খুলনা থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।
খুলনা থানার এসআই ফিরোজ আলম বলেন, হামলাকারী ব্যক্তির নাম শাহ আলম। সে নতুন বাজার লঞ্চঘাট এলাকার জালাল শেখের ছেলে। তাকে গ্রেফতার করে জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা করে দেখা যায়, সে মাদকাসক্ত ছিল। তাকে কেএমপি অ্যাক্টে আটক দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ