ঢাকা, শনিবার 20 January 2018, ৭ মাঘ ১৪২৪, ২ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সরকার নিজেরাই আখের গোছাতে ব্যস্ত -সেলিম উদ্দিন

গত বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর রমনা থানা পশ্চিমের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও মহানগরী উত্তরের আমীর সেলিম উদ্দিন -সংগ্রাম

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেছেন, গণমানুষের মৌলিক সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব সরকারের হলেও তারা জনগণের কল্যাণে কাজ না করে ক্ষমতা রক্ষায় অপকৌশলে ব্যস্ত। রাজধানীসহ সারা দেশে তীব্র শীত অনুভূত হলেও সরকার এসব শীতার্ত ও দুর্গত মানুষদের কল্যাণে এগিয়ে আসেনি বরং নিজেরাই আখের গোছাতে ব্যস্ত রয়েছে। তাই ব্যর্থ ও গণবিরোধী সরকারের পরিবর্তে গণপ্রতিনিধিত্বশীল সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি শীতার্ত ও সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দুর্দশা লাঘবে সরকার, দাতাসংস্থা, প্রীতি তহবিল, সমাজসেবা প্রতিষ্ঠান ও সমাজের বিত্তবান মানুষসহ নগরীর অধস্তন সংগঠনের সকল স্তরের জনশক্তিকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
গতকাল শুক্রবার রাজধানীতে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তরের রমনা পশ্চিম থানার উদ্যোগে শীতার্ত ও সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। থানা আমীর মুহাম্মদ আতাউর রহমান সরকারের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি ইউসুফ আলী মোল্লার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরী উত্তরের মজলিশে শূরা সদস্য ড. আহসান হাবীব। আরও উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা আবু তানজিল ও আবু সাঈদ প্রমুখ।
সেলিম উদ্দিন বলেন, জামায়াত প্রচলিত কোন রাজনৈতিক দল নয় বরং গণমানুষের জন্য কল্যাণকামী একটি আদর্শবাদী ও আর্তমানবতার সেবায় নিবেদিত গণমুখী সংগঠন। আমাদের সাধ অনেক কিন্তু সাধ্য খুবই সীমিত। জাতির যেকোন দুর্যোগ ও ক্লান্তিকালে জামায়াতে ইসলামী সীমিত সামর্থ নিয়েই বিপদগ্রস্ত ও দুর্গত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। মূলত রাষ্ট্রীয় ব্যর্থতা ব্যক্তি ও সাংগঠনিক পর্যায়ে সমাধান করা কোন ভাবেই সম্ভব নয়। কিন্তু তবুও গণমানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা আমাদের সীমিত সামর্থ নিয়ে শীতার্ত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। আসলে সম্পদের সুসম বন্টনের অভাবেই মানুষে মানুষে ব্যবধান বেড়েছে। তাই এই ব্যবধান দূর করতে হলে সৎলোকের শাসন ও ন্যায়-ইনসাফভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই।
তিনি বলেন, দুর্গত ও বিপন্ন মানুষসহ নাগরিকদের সকল সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব রাষ্ট্রের। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আমাদের দেশে কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত না থাকায় জনগণ রাষ্ট্রের কল্যাণ থেকে বঞ্চিত। কারণ, ক্ষমতাসীনরা জনগণের কল্যাণে রাজনীতি না করে আত্মস্বার্থ, গোষ্ঠীস্বার্থ ও সংকীর্ণ দলীয় স্বার্থে রাজনীতি করছেন। তাই আমাদের দেশের রাজনীতি ও রাষ্ট্রব্যবস্থা এখনও গণমুখী হয়ে ওঠেনি। সরকার যদি তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতো তাহলে দুর্গত মানুষদের লাইনে দাঁড়িয়ে সাহায্যের জন্য হাত বাড়াতে হতো না বরং রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় মানুষের ঘরে ঘরে প্রয়োজনীয় সাহায্য পৌঁছে দেয়া হতো। তাই গণমানুষের সার্বিক সমস্যার সমাধান করতে হলে দেশকে ন্যায়-ইনসাফের ভিত্তিতে কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করার কোন বিকল্প নেই। তিনি সেই স্বপ্নের ও কাক্সিক্ষত সমাজ প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে সকলকে শরীক হওয়ার আহ্বান জানান।
দারুসসালাম থানা: দারুসসালাম থানার উদ্যোগে নগরীতে শীতার্ত ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। থানা আমীর মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত থেকে দরিদ্র ও দুর্গত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।  উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা গাজী মাহবুব আলম, আবু সা’দ, ডা. রেজা ও আব্দুল মান্নান প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ