ঢাকা, সোমবার 22 January 2018, ৯ মাঘ ১৪২৪, ৪ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ-যুবলীগের সংঘর্ষ, আহত ১০

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মিরসরাইয়ে ছাত্রলীগ-যুবলীগের দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মাঝে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। বুধবার (১৭ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় উপজেলার মিরসরাই সদর ইউনিয়নের মিঠাছরা বাজারে যুবলীগ কর্মী নুর হোসেন আরিফ এবং ছাত্রলীগ নেতা কফিল উদ্দিন রিহাবের গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় আহত হন, উপজেলা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক কফিল উদ্দিন রিহাব, ছাত্রলীগ নেতা বাবু, ইমতিয়াজ ইসলাম পুষাদ, মো: বাপ্পী ইসলাম, নাজিম উদ্দিন। এসময় ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা বাজারে রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে মহড়া দেওয়ায় পুরো বাজারে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। 

যুবলীগ কর্মী নুর হোসেন আরিফ বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক রিহাব এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইমামুল ইসলাম লিটনের নেতৃত্বে ৬০-৭০ জন লোকজন মিঠাছরা বাজারে এসে হঠাৎ মহড়া দেয়। 

এসময় তারা আমাকে সহ কয়েকজনকে মিঠাছরা বাজার থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মারার হুমকী দেয়। এসময় আমরা তাদের বাধা দিলে হাতাহাতি হয়। পরে বাজারের সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন সহ আ’লীগ নেতারা উভয়পক্ষকে সরিয়ে দেয়। 

পরবর্তী তারা মিরসরাই থেকে আরো ছেলে নিয়ে এসে আমাকেও উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাহ উদ্দিন রুবেলের নাম ধরে গালাগালি শুরু করে। 

এ সময় আমরা এক সাথে লাঠিসোটা নিয়ে তাদের প্রতিরোধ করি। এতে কয়েকজনের হাত-পা কেটে যায়। আমাদের ছাত্রনেতা ইমতিয়াজ ইসলাম পুষাদ, মো: বাপ্পী ইসলাম, নাজিম উদ্দিন এসময় আহত হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ