ঢাকা, সোমবার 22 January 2018, ৯ মাঘ ১৪২৪, ৪ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

তালা হাসপাতালের টেকনিশিয়ান ১৫ বছর অফিস না করে বেতন উত্তোলন

তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা: সাতক্ষীরার তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনিশিয়ান (ডেন্টিস) মোঃ নাসির উদ্দীন প্রায় ১৫ বছর অফিস না করে বেতন উত্তোলন করে আসছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 

তিনি ঢাকার বাড্ডায় নিজস্ব বাসভবনের সাথে ক্লিনিক স্থাপন করে সেখানে রমরমা ব্যবসা করে যাচ্ছেন। হাসপাতালের একটি সিন্ডিকেট চক্র হাজিরা খাতায় ভুয়া স্বাক্ষর করে দিব্যি বেতন উত্তোলন করে নিয়মিত ঢাকায় পাঠিয়ে দেন। 

আবার কোন কোন সময় তিনি নিজে এসে বেতনের টাকা নিয়ে যান বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনা জানাজানি হলে সাংবাদিকদের ম্যানেজ করতে মাঠে নেমে পড়েছে হাসপাতালের সিন্ডিকেট চক্রটি। তারা সংবাদটি পত্রিকায় প্রকাশ না করার জন্য ইতিমধ্যে প্রেসক্লাবের কর্মকর্তাদের কাছে গিয়ে ধর্ণা দিচ্ছেন। 

এসব ঘটনা অকপটে স্বীকার করে নাসির উদ্দীন বলেন, “তালা থেকে বদলীর জন্য বহুদিন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কদিন আগেও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার নিকট থেকে বদলীর জন্য ফরোয়ার্ডিং নিয়েছি কিন্তু তাতে কোন কাজ  হচ্ছে না।” এদিকে উক্ত বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা সিভিল সার্জন, তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় সংসদ সদস্যদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী। 

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সরেজমিনে হাসপাতালে গেলে জানা যায়, মোঃ নাসির উদ্দীন ২০০৩ সালে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনিশিয়ান (ডেন্টিস) হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকেই তিনি এখানে অফিস করেন না। তার বসার কোন চেম্বার হাসপাতালের কোথাও নেই। তালা হাসপাতালের একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট চক্র হাজিরা খাতা ও বেতন শিটে ভুয়া স্বাক্ষর করে দিব্যি বেতন উত্তোলন করে ঢাকায় পাঠিয়ে দেন। বর্তমানে তিনি ঢাকার বাড্ডায় নিজস্ব বাসভবনের সাথে ক্লিনিক স্থাপন করে সেখানে রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। ২/৩ মাস পর মাঝে-মধ্যে তালা হাসপাতালে বসন্তের কোকিলের মতো নাসির উদ্দীনের দেখা মেলে বলে জানা গেছে। তবে নাসির উদ্দীন তার বেতনের বড় একটি অংশ পান না। 

উক্ত টাকা হাসপাতালের সিন্ডিকেট চক্র ভাগাভাগি করে নেয় বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

সূত্রটি আরো জানায়, শুধু নাসির উদ্দীন নয়, হাসপাতালের ডাক্তারসহ অনেক কর্মকর্তা- কর্মচারীরা দিনের পর দিন অফিসে না এসে বেতন উত্তোলন করে থাকেন। আর এসব ঘটনার নেপথ্যে কাজ করে হাসপাতালের ঐ সিন্ডিকেট চক্রটি। চক্রটি কোন কোন সময় বাহির এলাকা হতে আসা স্টাফদের জিম্মী করে বিভিন্নভাবে অর্থ আদায় করে থাকেন বলে অভিযোগ রয়েছে। 

এ ব্যাপারে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কুদরত-ই-খুদা বলেন, তিনি হাসপাতালে যোগদানের পর থেকে মেডিকেল টেকনিশিয়ান মোঃ নাসির উদ্দীনকে মাত্র ২/৩ দিন দেখেছেন। মাঝে মাঝে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তিনি ছুটিতে আছেন। 

উল্লেখ্য, তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার সংকট নিরসনসহ বিভিন্ন অনিয়ম বন্ধের দাবিতে সম্প্রতি প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচি ও পথসভার পরে নড়েচড়ে বসে স্থানীয় সাংবাদিক ও এলাকাবাসী। আর এসব ঘটনার তদন্তেই বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে থলের বিড়াল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ