ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

লাইসেন্স ছাড়া নলকূপ স্থাপন করলে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: লাইসেন্স ছাড়া কৃষিকাজের জন্য নলকূপ স্থাপনে আগের চেয়ে শাস্তি বাড়িয়ে নতুন আইন প্রণয়নের প্রস্তাব জাতীয় সংসদে রোববার পাস হয়েছে।

১৯৮৫ সালের ‘দ্যা গ্রাউন্ড ওয়াটার ম্যানেজমেন্ট অর্ডিন্যান্স’ বাতিল করে নতুন করে আইন করতে ‘কৃষিকাজে ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১৮’ সংসদে বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। পরে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

গত ১২ জুলাই বিলটি সংসদে তোলেন কৃষিমন্ত্রী। পরে তা পরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী সামরিক শাসনামলে প্রণীত অধ্যাদেশটি বাংলায় অনুবাদ করে আইনে রূপান্তর করা হচ্ছে।

নলকূপ স্থাপনে লাইসেন্স নেয়ার বিধান আগের অধ্যাদেশেও ছিল। পাস হওয়া বিলে লাইসেন্স ছাড়া নলকূপ স্থাপনে দণ্ডের পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে।

লাইসেন্স ছাড়া কৃষির জন্য নলকূপ স্থাপনে আগে জরিমানা ছিল সর্বোচ্চ ২ হাজার টাকা। বিলে তা বেড়ে হচ্ছে ১০ হাজার টাকা বা অনাদায়ে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড রাখা হয়েছে।

বিলে বলা হয়েছে, উপজেলা পরিষদ নলকূপের লাইসেন্স স্থগিত ও বাতিল করতে পারবে। বিদ্যমান নলকূপগুলোকে সময় দিয়ে লাইসেন্স নেয়ার সুযোগ দেয়া হবে। যদি কোনো লাইসেন্স এক বছরের মধ্যে তিনবার স্থগিত হয় তবে উপজেলা পরিষদ শুনানি করে তা বাতিল করতে পারবে বলেও বিলে বিধান রাখা হয়েছে। এছাড়া আগের আইনের মতো বিলে উপজেলা সেচ কমিটির বিধান রাখা হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘কৃষি উন্নয়নে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার জন্য এবং সেচকাজে পানির অপচয় হ্রাস, ভূগর্ভের পানির সুপরিকল্পিত ব্যবহার নিশ্চিত করতে আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ