ঢাকা, মঙ্গলবার 23 January 2018, ১০ মাঘ ১৪২৪, ৫ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম

চুয়াডাঙ্গা সদর সংবাদদাতা: প্রতিশোধ নিতেই চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলা শহরে যুবলীগ কর্মী মাসুদ রানা ভুট্টোকে (৩৫) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম    করেছে একই শহরের খাঁপাড়ার এ্যাডভোকেট আবু তালেবের ছেলে বাঁধন (২০)। ভুট্টোকে গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে যশোরে আড়াইশ শয্যা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। শুক্রবার বিকাল আনুমানিক ৫টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ     হামলার ঘটনাটি ঘটে। আহত মাসুদ রানা ভুট্টো দামুড়হুদা উপজেলার শহরের দশমীপাড়ার আফজাল হোসেনের ছেলে ও যুবলীগ কর্মী।  প্রত্যক্ষদশীদের উদ্বৃতি দিয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আকরাম হোসেন জানান, শুক্রবার বিকাল আনুমানিক ৫টার দিকে মাসুদ রানা ভুট্টো, তার দুই বন্ধু বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চায়ের দোকানে বসে ছিলো। এসময় চায়ের দোকানে চুয়াডাঙ্গার বিপ্লব ও পিয়াস নামের দু যুবক চা পান করছিলো। ওই মুহূর্তে দামুড়হুদা উপজেলা শহরের খাঁপাড়ার এ্যাডভোকেট আবু তালেবের ছেলে বাঁধন (২০) এসে ভুট্টুকে বলে চাচা ভালো আছেন। একথা বলে বাঁধন ওই চায়ের দোকানের পিছনে চলে যায়। তার পরপরই ভুট্টো দোকানের পাশ দিয়ে থাকা গলি দিয়ে ধুমপান করতে করতে মোবাইল ফোনে কথা  বলার জন্য দোকানের পিছনে যায়। দোকানের পিছনে যাওয়ার পরপরই বাঁধন, তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। ভুট্টোর চিৎকারে তিন জন পালিয়ে যায়।
পরে স্থানীয় এক ব্যক্তি তাকে মোটরসাইকেল করে দামুড়হুদা মডেল থানায় নিয়ে গেলে থানা পুলিশ তাকে চিকিৎসার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ