ঢাকা, শুক্রবার 26 January 2018, ১৩ মাঘ ১৪২৪, ৮ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হাসপাতালে কাক্সিক্ষত  স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত  করুন 

 

বাসস : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের হাসপাতালগুলোতে জনগণের কাক্সিক্ষত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল  বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁর তেজগাঁওস্থ কার্যালয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সম্প্রসারণ এবং আধুনিকায়ন সংক্রান্ত মডেল উপস্থাপনকালে তিনি এ সকল নির্দেশনা প্রদান করেন।

তিনি বলেন,‘ আমাদের লক্ষ্যই হচ্ছে সঠিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা যাতে সাধারণ মানুষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং অন্যান্য হাসপাতাল থেকে কাক্সিক্ষত চিকিৎসা সেবা পেতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে একটি পরিবেশ বান্ধব এবং দৃষ্টি নন্দন আধুনিক চিকিৎসা সেবার সুবিধা সম্বলিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে সংশ্লিষ্ট কতৃর্পক্ষকে নির্দেশ দেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকার আধুরিকায়নের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে নতুন রূপ দিতে চায় যেখানে বিভিন্ন আধুনিক সুযোগ-সুবিধা এবং পর্যাপ্ত খোলা জায়গা থাকবে। উন্নত আবহ সৃষ্টি করাটা জরুরী এবং যে কোন আগুন লাগার ঘটনা ঘটলে অগ্নি নির্বাপন সরঞ্জামের পাশাপাশি দ্রুত এবং নিরাপদ প্রস্থান নিশ্চিত করাটাও প্রয়োজনীয়।

স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে এবং স্বাস্থ্যসেবাকে সাধারণ জনগণের দোড়গোঁড়ায় পৌঁছে দিতে তাঁর সরকার নিরলস পরিশ্রম করছে।

তিনি এ সময় ‘৯৬ থেকে ২০০১’ পর্যন্ত তাঁর প্রথমবার সরকারে থাকার সময়ে দেশের প্রথম মেডেকেল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার প্রসংগ উল্লেখ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের চট্টগ্রাম এবং রাজশাহীতে আরো দুটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের প্রক্রিয়া চলছে।

পর্যায়ক্রমে দেশের সকল বিভাগীয় সদর দপ্তরে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনেও সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করছে, বলেন তিনি।

 মেডিকেয়ার সুবিধা সম্প্রসারণে তাঁর সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, এক সময় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালই ঢাকা শহরে চিকিৎসার জন্য একমাত্র স্বাস্থ্য কেন্দ্র ছিল এবং বেসরকারি খাতেও কোন হাসপাতাল ছিল না।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালিক এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ