ঢাকা, শুক্রবার 26 January 2018, ১৩ মাঘ ১৪২৪, ৮ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মার্কিন জিমন্যাস্টিক চিকিৎসকের ১৭৫ বছরের জেল 

২৫ জানুয়ারি, রয়টার্স : তত্ত্বাবধানে থাকা নারী খেলোয়াড়দের যৌন নির্যাতনের দায়ে যুক্তরাষ্ট্রের জিমন্যাস্টিক দলের সাবেক এক চিকিৎসককে ১৭৫ বছরের কারাদ- দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্তদের কান্নার মধ্যে গত বুধবার মিশিগানের ইংহ্যাম কাউন্টি সার্কিট আদালত চিকিৎসক ল্যারি নেসারের বিরুদ্ধে এ রায় দেয় বলে বার্তা সংস্থা এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। 

“আমি তোমার মৃত্যু পরোয়ানায় স্বাক্ষর করলাম,” ৫৪ বছর বয়সী নেসারকে বলেন বিচারক রোজমেরি আকুইলিনা। এসময় উপস্থিত দর্শক ও অভিযুক্তদের চোখে পানি দেখা যায়, তারা করতালি দিয়ে আদালতের রায়কে স্বাগত জানান। এ সময় গাঢ নীল রংয়ের কয়েদি পোশাক পরা নেসারকে বিব্রত দেখাচ্ছিল। সাবেক এ জিমন্যাস্টিক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে জনসমক্ষে প্রথম অভিযোগ জানানো র‌্যাচেল ডেনহলেন্ডেরকে তখন আনন্দে প্রধান তদন্ত কর্মকর্তা আঙ্গেলা পভিলাইটিসকে জড়িয়ে ধরতে দেখা যায়।

 ডেনহেলেন্ডারসহ প্রায় ১৬০ জনের কাছ থেকে নেসারের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। 

নির্যাতন বন্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থতার সমালোচনার মধ্যে রায় ঘোষণার পর মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। নেসার ওই বিশ্ববিদ্যালয়েও কাজ করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের অলিম্পিক কমিটির প্রধান জিমন্যাস্টিকের সব পরিচালককে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন। মামলার শুনানিতে চারটি অলিম্পিকে চিকিৎসকের দায়িত্বে থাকা নেসার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো নারীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। বলেছিলেন, “আপনাদের কথাগুলো জীবনভর মনে রাখবো আমি।”

বিচারক নেসারের এ বিবৃতিকে ‘কপট’ অ্যাখ্যায়িত করে তা প্রত্যাখ্যান করেন। আদালতকক্ষে উপস্থিত দর্শকদের বিস্ময়ের মধ্যে বিচারক দোষী সাব্যস্ত জিমন্যাস্টিক চিকিৎসকের একটি চিঠিও পড়ে শোনান, যাতে নিজেকে ভালো চিকিৎসক দাবি করে নেসার তাকে দোষী বানানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন।  শিশু পর্নোগ্রাফির অভিযোগে অন্য একটি মামলায় ইতোমধ্যে ৬০ বছরের কারাদ-ে থাকা নেসার চিঠিটিতে বলেন, টাকা ও খ্যাতির জন্য অনেকেই তার বিরুদ্ধে ‘বিকৃত অভিযোগ’ করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ