ঢাকা, সোমবার 5 February 2018, ২৩ মাঘ ১৪২৪, ১৮ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চুয়াডাঙ্গা শহর ধূলি ধূসর

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা: বর্ষায় ভাঙ্গাচোরা রাস্তার কাঁদা আর শুষ্ক মওসুমের ধূলোর মিছিলে বর্তমান বসবাসের জন্য অযোগ্য স্থানে পরিনত হয়েছে  চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর। জেলা প্রশাসকের তাকিদ আর জাতীয় সংসদের হুইপের কঠোর নির্দেশ কোনটাই যেন পরওয়া করছেন না সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। ফলে সড়ক সংস্কারের জন্য সড়কের ওপরের পিচ খুঁড়ে দীর্ঘদিন ধরে ফেলে রাখার কারণে মাত্রাতিরিক্ত ধূলোয় শহীদ আবুল কাশেম সড়কে পথচারী ও সড়কের ধারের ব্যবসায়ীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
জানা গেছে, ৬৭ কোটি ৬১ লাখ ৭২ হাজার ৯৬১ টাকা ব্যয়ে চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের সুবদিয়া থেকে মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের কুলপালা পর্যন্ত সড়ক প্রশস্তকরণসহ কাজ শুরু হয়েছে বেশ আগে থেকেই। গত বছরের ২০ জুন মেহেরপুরের জহুরুল লিমিটেড ও রানা বিল্ডার্স নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কার্যাদেশ পায়। চলতি বছরের জুনের মধ্যে এ কাজ স¤পন্ন করার কথা। চুায়াডাঙ্গা জেলা শহরের শহীদ আবুল কাশেম সড়কও এ কাজের অন্তর্ভুক্ত। সড়কের কিছু অংশে কাজ শুরু করলেও জেলা শহরের মধ্যে বিশেষ করে অতিব জনগুরুত্বপূর্ণ শহীদ আবুল কাশেম সড়কটির অধিকাংশ স্থানে খুঁড়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে ধুলোয় পথচারীসহ পথের পাশের ব্যবসায়ীদেরকে শুধু অবর্ণনীয় দুর্ভোগই পোহাতে হচ্ছে না বরং যাদের ধুলোয় এলার্জি তাদের পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। এছাড়া প্রতিদিনই দুর্ঘটনা লেগেই রয়েছে। ফলে প্রতিদিনই সড়কে চরম যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। ধীর গতির কাজের ফলে শহরের প্রধান সড়ক শহীদ আবুল কাশেম সড়কটি দীর্ঘদিন ধরেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সদ্য বিদায়ী বর্ষাতে হাঁটু পানি আর কাদায় মানুষ অতীষ্ঠ হয়ে উঠেছিল। এখন চলছে ধূলার রাম রাজত্ব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ