ঢাকা, সোমবার 5 February 2018, ২৩ মাঘ ১৪২৪, ১৮ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মেডিকেল অফিসারের ১২টি পদ শূন্য

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা: ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘদিন ১৫টি পদের মধ্যে ১২টি মেডিক্যাল অফিসারের পদ শূন্য রয়েছে। ফলে দুইজন ডাক্তার দিয়ে চলছে ৫০ শয্যার এই হাসপাতাল। এতে চিকিৎসাসেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। বর্তমানে এখানে তিনজন অভিজ্ঞ মেডিক্যাল অফিসার কর্মরত থাকলেও ডা. ইকরামুন্নাহার শেলী ও ডা. আকতারুজ্জামানের পক্ষে এতো রোগীর উপযুক্ত চিকিত্সা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।
এ ছাড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. হালিমা খানম বেশির ভাগ সময় প্রশাসনিক কাজে ব্যস্ত থাকেন। ফলে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির বহিঃ এবং আন্তঃবিভাগ চলছে নার্স ও উপ-সহকারী মেডিক্যাল অফিসার দ্বারা।
জানা গেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এখানে প্রতিটি পদের বিপরীতে মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগ দিলেও নানা কোর্সের অজুহাতে স্বল্প সময়ের মধ্যে তদবির করে তারা শহরের হাসপাতালে চলে যান। ভাঙ্গুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, শেখ হাসিনার সরকার নতুন অ্যাম্বুলেন্সসহ এখানে সকল সুযোগ-সুবিধা প্রদান করলেও রোগীরা সঠিক চিকিৎ্সাসেবা পাচ্ছেন না। এ ছাড়া ওয়ার্ডে বিদ্যুতের বিকল্প ব্যবস্থা নেই। প্রাইভেট ক্লিনিকে অপারেশন চললেও এখানকার ওটি বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে প্রসূতি মা সহ জটিল রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা সেবা নিতে এসে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।
স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. হালিমা খানম বলেন, এক বছর আগে উদ্বোধন করা হলেও ৫০ শয্যার এই হাসপাতালের এখনো প্রশাসনিক অনুমোদন মেলেনি এবং চিকিৎ্সকের পদায়ন দেওয়া হয়নি। তাই কাঙ্ক্ষিত সেবা প্রদানে তাদের অপারগতা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ