ঢাকা, সোমবার 5 February 2018, ২৩ মাঘ ১৪২৪, ১৮ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হুমকির পরই হত্যা করা হয় যুবলীগ কর্মী জাকিরকে

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে যুবলীগ কর্মী জাকির হোসেন হত্যাকান্ডের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা কামাল হোসেনকে ষড়যন্ত্রমুলক ভাবে ফাঁসানো হয়েছে দাবি করে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার দাবিতে ছাত্রলীগের একটি অংশ মানববন্ধন কর্মসুচী করেছেন। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার হাবিবনগড় এলাকার কাঞ্চন-কুড়িল বিশ^রোড ৩০০ ফুট সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করা হয়।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান সজিব, ছাত্রলীগ নেতা লুৎফর রহমান মুন্না, আশিকুল ইসলাম খোকন, আনোয়ার হোসেন তামিম, রাশেদ, জহিরুল ইসলাম প্রমুখ।
এদিকে, মামলার বাদী ও নিহতের স্ত্রী ফারজানা বেগম দাবি করেছেন, উপজেলার ভুলতা তাঁত বাজারে তার স্বামী জাকির হোসেনকে কাঁচামালের ব্যবসা থেকে সরাতে না পেরে হত্যার হুমকি দিয়েছিলো বলাইখা এলাকার ছাত্রলীগ নেতা কামাল হোসেন, তার সহযোগী বাবু, শাহিনসহ তাদের লোকজন।
এ ব্যাপারে নিজের এবং পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে তাদের বিরুদ্ধে গত ২০১৭ সালের ১০ ডিসেম্বর রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন জাকির হোসেন। হুমকির দেড় মাস পর জাকিরকে কুপিয়ে হত্যা করে তারা।
নিহত জাকির হোসেন উপজেলার ভুলতার ইউনিয়নের মর্তুজাবাদ এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। জাকির হোসেনের স্ত্রী ফারজানা বেগম, ছেলে এখলাছ ও মেয়ে ইলমাকে নিয়ে শিংলাবো এলাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। গত ৩১ জানুয়ারী সকাল সোয়া ৭টার দিকে তাঁতবাজার এলাকায় গলায়, পিঠে, কাঁধ, হাতের কব্জিসহ শরীরের নয়টি অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাত করে যুবলীগ কর্মী জাকির হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় শাহিন ও বাবু নামে দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া গ্রেফতারকৃতরা হত্যাকান্ডের ঘটনা স্বীকার করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ