ঢাকা, বৃহস্পতিবার 8 February 2018, ২৬ মাঘ ১৪২৪, ২১ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জানুয়ারি মাসে রাজনৈতিক সন্ত্রাস

মুহাম্মদ ওয়াছিয়ার রহমান : [দুই]
২২ জানুয়ারি ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সমানে এক মুক্তিযোদ্ধাকে নিয়ে কটুক্তি করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ ও জাজিরা এলাকাবাসীর ব্যানারে এই প্রতিবাদ করা হয়। গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে শরীয়তপুরের জাজিরায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এমপি এক মুক্তিযোদ্ধা সম্পর্কে কটুক্তি করে। শরীয়তপুরের গোশাইরহাটে বিভিন্ন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দফতরি নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ইউএনও মোঃ মামুন শিবলীকে গালাগাল এবং অস্ত্র প্রদর্শন করে হুমকি দেয় আওয়ামী লীগ উপজেলা সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নাসির উদ্দিন। এ বিষয়ে ইউএনও থানায় জিডি করেন। নেত্রকোনার কমলাকান্দায় সিধলী বাজারে জুয়ার আসর বসানোর অভিযোগে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক হায়দার আলী, সুজন মিয়া, আইনুল হক, লিটন মিয়া, বিল্লাল মিয়া, ফরিদ মিয়া ও হারুন মিয়াকে আটক করে পুলিশ। ২৩ জানুয়ারি যশোরের বাঘারপাড়ায় বন্দবিলা ইউনিয়নে প্রেমচরা গ্রামে আওয়ামী লীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। আওয়ামী লীগ নেতা রুস্তম মোল্লা ও আলম মোল্লার সমর্থকদের মধ্যে এই ঘটনা ঘটে।
২৫ জানুয়রি সিলেটের একটি আদালত জৈন্তাপুরে হোসাইন আহমেদ হত্যা মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলীসহ ৩০ জন আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠায়। এ সময় আদালত পাড়ায় আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘষের ফলে পেশাগত দায়িত্ব পালন কালে যমুনা টিভির সিলেট ব্যুরোর ক্যামেরাপার্সন নিরানন্দ পাল এবং দৈনিক যুগান্তর ও দৈনিক শুভ প্রতিদিনের ফটো সাংবাদিক মামুন হাসান আহত হয়। ২৬ জানুয়ারি মেহেরপুরে সিন্দুরকাটা গ্রামের তিন রাস্তার মোড় সংলগ্ন কাঁঠাল বাগান থেকে ৪৭ পিস ইয়াবাসহ আওয়ামী লীগ নেতা কামাল হোসেনকে আটক করে পুলিশ। ২৭ জানুয়ারি সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এমপি ও আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদুস সামাদ চৌধূরী কয়েস এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষে ১২ জন আহত হয়। ২৯ জানুয়ারি বগুড়ার ধুনটে আওয়ামী লীগ দু’গ্রুপে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক টি.আই.এম নূরুন্নবী তারিক ও ছাত্রলীগ উপজেলা সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব ও পৃথক সংঘর্ষে মিলন মিয়া, সজল মাহমুদ, যুবলীগ নেতা পলাশ মাহমুদ, আতিকুল ইসলাম শামীম ও হাসান খসরু খান নুপুর আহত হয়।
ছাত্র লীগ : ১ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দলীয় কোন্দলে কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক ইমরান জমাদ্দারের উপর হামলা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা উপ-ক্রীড়া সম্পাদক হাবিবুর রহমান তুষারের নেতৃত্বে ৩০-৪০ জন। ২ জানুয়ারি ঢাকার তেজগাঁও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০ জন। ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের মধ্যে চাঁদাবাজী এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে রাসেল, মাজহারুল, শাহজালাল, বাবুল, সাইফুল, বাসুদেব, নাদিম, শান্ত, রনি, জনি ও খায়রুল ইসলামসহ ২০ জন আহত হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১ জনকে আটক করে। আটক ছাত্র নেতাকে জোর করে ছাড়িয়ে নিতে তারা পুলিশের সাথেও সংঘর্ষ করে। সিলেট শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি রুহুল আমীন ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের বিরুদ্ধে শাবি প্রেস ক্লাবে চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজী ও ফাও খাওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করে উপ-মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক লক্ষণ চন্দ্র বর্মণ। সংবাদ সম্মেলনে ল্যাপটপ চুরির ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। ৩ জানুয়ারি টাঙ্গাইলের করটিয়া সা’দাত কলেজে ছাত্রলীগের কমিটি গঠন নিয়ে দু’গ্রুপে চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল ও মিলন মাহমুদ গ্রুপের মধ্যে এই উত্তেজনা দেয়া দেয়। ৪ জানুয়ারি সিলেট এমসি কলেজে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আক্তার হোসেন, আবুল হাসান, সোহেল আহমেদ, নাজমুল ইসলাম ও পাভেলসহ আহত ১০ জন। ছাত্রলীগ হিরণ-জাহাঙ্গীর-মিঠু গ্রুপ ও আজাদ গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০ জন। ছাত্রলীগ ভিএক্স গ্রুপ ও সিক্সটি নাইন গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে সাইফ মাহমুদ ও নাজমুল সামির আহত হয়। এ সময় তারা সোহরাওয়ার্দী হলে ২০টি কক্ষ ভাংচুর করে। সুনামগঞ্জের শাল্লায় ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন আহত। উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক পলাশ চৌধুরী গ্রুপ ও যুগ্ম-আহবায়ক সন্দীপ সরকার গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে পলাশ চৌধূরী, শামীম আহমেদ, পল্টু সরকার ও বিধু দাসসহ আহত ১০ নেতা-কর্মী। বরিশাল মহানগরীতে নূরীয়া স্কুল মাঠে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে মহানগরী যুগ্ম-সম্পাদক রইস উদ্দিন আহমেদ মান্না গ্রুপ হামলা ও ভাংচুর করে।
৫ জানুয়ারি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষ। ছাত্রলীগ নেতা ডাঃ আব্দুল হান্নান গ্রুপ ও ডাঃ হাবিবুর রহমান পলাশ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে তৌফিক ও ইরফানসহ আহত ১৫ জন। ৬ জানুয়ারি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ওয়াপদায় ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের হামলায় ১৫ জন আহত। হামলায় উপজেলা যুবদল দপ্তর সম্পাদক ওসমান শেখ, উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম-সম্পাদক ইসমাইল তালুকদার খোকন, ১নং ইউনিয়ন ছাত্রদল নেতা আসিফ হোসেন জনি, ৩নং ইউনিয়ন ছাত্রদল যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক রাসেল, ৬নং ইউনিয়ন ছাত্রদল যুগ্ম-সম্পাদক সুজন শেখ, ১০নং ইউনিয়ন ছাত্রদল সভাপতি সুমন, ১৬নং ইউনিয়ন ছাত্রদল সহ-সভাপতি শিবলু, পৌর ছাত্রদল নেতা রাজু ও বিএনপি নেতা সবুর খান রুবেলসহ আহত ১৫ জন। তাদের হামলায় পুলিশের এসআই মমিন, রিপন, রুপন, আজাদ ও মোঃ রিপন আহত হয়। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে সাবেক এমপি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সাত্তারকে ছাত্রলীগ উপজেলা শাখা তাদের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। ৭ জানুয়ারি সিলেট মহানগরীর টিলাগড় এলাকায় দলীয় ক্যাডারদের হাতে সিলেট সরকারী কলেজের ছাত্র ও ছাত্রলীগ কর্মী তানিম খান খুন হয়। ছাত্রলীগ নেতা রঞ্জিত গ্রুপ ও আজাদ গ্রুপের দ্বন্দ্বে এই হত্যাকান্ড ঘটে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত ৪ জনকে আটক করে। ৬ জানুয়ারি পটুয়াখালী সরকারী কলেজে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে ছাত্রলীগের হামলায় এ্যাডঃ আফজাল হোসেন, রাকিব ও রুবেল আহত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের আনন্দ র‌্যালীতে দফায় দফায় সংঘর্ষে ৩ জন আহত হয়। বরগুনার পাথরঘাটায় ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষের খবর সংগ্রহ করতে গেলে নয়া দিগন্তের পাথরঘাটা সংবাদদাতা এএসএম জসিমের উপর ছাত্রলীগ পাথরঘাটা পৌর প্রচার সম্পাদক রাকিব খান ও উপজেলা দপ্তর সম্পাদক খলিলুর রহমানসহ কয়েকজন হামলা করে তার ক্যামেরা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে তাকে লাঞ্ছিত করে। ৭ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ উপ-ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হাসিবুর রহমান তুষারের ইয়াবা সেবনরত ছবি পত্রিকায় প্রকাশ হয়। গত ৬ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মাদকের বিরুদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবানের পরদিন এই ঘটনা প্রকাশ হলো। পরে হাসিবুর রহমান তুষারকে ইয়াবা সেবন করার দায়ে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে ছাত্রলীগ।
৮ জানুয়ারি সিলেটের ওসমানীনগরে তাজপুর ডিগ্রী কলেজে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১২ জন। স্বেচ্ছাসেবক লীগ উপজেলা আহবায়ক চঞ্চল পাল ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আনা মিয়া সমর্থিত ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে আহত হয় মঞ্জুর আহমেদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহবায়ক চঞ্চল পাল, যুবলীগ নেতা সেবুল আহমেদ, আওয়ামী লীগ নেতা চয়ন পাল, ছাত্রলীগ নেতা রাসেল, রুবেল, সুজন, কামরুল, হাম্মাদ. সালেহ, অজিত ও জুনেদ। লক্ষ্মীপুর সরকারী কলেজে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ছাত্রলীগ কর্মী তারেক, ইমন ও জুবায়েরসহ ৫ জন আহত হয়। ছাত্রলীগ কলেজ সভাপতি সাইফুল ইসলাম রকি ও সাধারণ সম্পাদক মহসীন কবীর সাগর গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। ময়মনসিংহ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিলে না যাওয়ায় আফসানা আহমেদ ইভা নামে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টোর কর্মীকে বেগম রোকেয়া হল থেকে করে দেয় ছাত্রলীগ নেত্রী তানিয়া আফরিন সিন্থিয়া, সাদিয়া আফরিন স্বর্না ও শিলাসহ কয়েকজন। ৯ জানুয়রি যশোরের বাঘারপাড়ায় ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও অফিস ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বায়োজিদ হোসেন ও আফজাল হোসেন সঞ্জীব গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্বে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় তারা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি ভাংচুর করে। ১০ জানুয়ারি খুলনার কয়রা উপজেলায় আওয়ামী লীগ অফিসের পেছনে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৯ জন আহত হয়। সংঘর্ষে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম, শ্রমিক লীগ সভাপতি আব্দুল হালিম গাজী, সোহরাব ঢালী, মিজানুর রহমান কোহিনুর, রবিউল ইসলাম, মোজাফ্ফর হোসেন, মওলা গাজী, জাকারিয়া ও রায়হান আহত হয়।
১২ জানুয়ারি পাবনা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ আহত ১০ জন। পাবনা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মাহফুজুর রহমান নয়ন গ্রুপ এবং সাধারন সম্পাদক অদ্বিতীয় গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। পরে কর্তৃপক্ষ মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করে ছাত্রদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়। ১৫ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ৭ কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবীতে আন্দোলনরত ছাত্রদের উপর ছাত্রলীগের হামলা। ঘটনার সময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গেলে ডেইলী ষ্টার পত্রিকার সাংবাদিক আশিক আব্দুল্লাহ অপু ও এনটিভি অনলাইনের রিপোর্টার মামুন তুষারকে লাঞ্ছিত করে ছাত্রলীগ। জামালপুর শহর ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি নূর হোসেন আবহানী এক সাংবাদিক, সম্পাদক ও প্রকাশককে ফেসবুকে হত্যার হুমকি দেয়ায় তাকে সংগঠন থেকে বহিস্কার করে ছাত্রলীগ। ১৬ জানুয়ারি ঢাকার বকশিবাজারে চায়ের দোকানে বসাকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সংঘর্ষে সাংবাদিক এবং পুলিশসহ আহত ১১ জন। ঢাবির এস.এম হল ও ঢামেক ড. ফজলে রাব্বী হল শাখা ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষে যমুনা টিভি’র ক্যামেরাপার্সন আব্দুল লতিফ, পুলিশের এসআই সেলিম ও ছাত্রলীগ কর্মী মানিকসহ ১১ জন আহত হয়। সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে অপহরণ ও চাঁদাবাজীর অভিযোগে ছাত্রলীগ উপজেলা সহ-সভাপতি জালাল আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জাবেদুর রহমান ডেনেজ, সোয়েবুর রহমান, কর্মী কাবিলুর রহমান সুহেল ও ফয়সাল আহমেদকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার করে সংগঠনটি। চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল ছাত্র ও ছাত্রলীগ কর্মী আদনান ইসফার দলীয় কোন্দলে খুন হয়। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই খুন হওয়ার পর পুলিশ ছাত্রলীগ কর্মী মঈন খান, সাব্বির খান, মুনতাসির মোস্তফা, এখলাস উদ্দিন আরমান ও আব্দুল্লাহ আল-সাঈদকে আটক করে এবং তারা আদালতে খুনের দায় স্বীকার করে। ২০ জানুয়ারি কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পুরান চড়াইকোল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ম্যানিজিং কমিটি গঠন নিয়ে আওয়ামী লীগ-জাসদের বিরোধকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ ও জাসদ গড়াই কমপ্লেক্স অডিটরিয়ামে সমাবেশ ডাকায় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে। চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউটে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষের পর পুলিশ ২৫ জনকে আটক করে। ছাত্রলীগ মনির হোসেন গ্রুপ ও আরাফাত গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শেষে ১৪ জনকে মুচলেকা দিয়ে ছাড়িয়ে আনে ছাত্রলীগ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ