ঢাকা, বৃহস্পতিবার 8 February 2018, ২৬ মাঘ ১৪২৪, ২১ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইসরাইলী সৈন্যদের বর্বরতায় আরো ২ ফিলিস্তিনী যুবকের শাহাদাতবরণ

ইসরায়েলী পুলিশের গুলীতে আহত একফিলিস্তিনী রাস্তায় পড়ে আছে-ফাইল -ছবি

৭ ফেব্রুয়ারি, আলজাজিরা/ওয়াফা : ফিলিস্তিনের নাবলুস শহরে ইসরায়েলী বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে এক ফিলিস্তিনী যুবক শাহাদাতবরণ করেছেন। বুকে গুলী করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার আল নাজাহ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া পশ্চিমতীরের জেনিন শহরে আরেক ফিলিস্তিনী যুবককে গুলী করে হত্যা করেছে দখলদার বাহিনী।
ফিলিস্তিনী সংবাদ সংস্থার বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এ খবর জানিয়েছে। খবরে বলা হয়, ফিলিস্তিনীদের গ্রেফতার করার জন্য ইসরায়েলী বাহিনী শহরটিতে প্রবেশ করলে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে আরও প্রায় ৪০ জন আহত হয়েছেন। ওয়াফা জানায়, আহতদের মধ্যে ৬ ফিলিস্তিনীর অবস্থা সংকটাপন্ন। এদের মধ্যে একজনের শরীরের উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে দিয়েছে ইসরায়েলী বাহিনী। আরেকজনের উড়ুতে গুলী করা হয়েছে। আর নিহত যুবকের নাম খালিদ ওয়ালিদ তায়েহ (২২)।
সপ্তাহের শুরুতে নাবলুস শহরে ছুরিকাঘাতে এক দখলদারী ইহুদির মৃত্যু হয়। ওই হত্যাকা-ের সন্দেহভাজনদের গ্রেফতারের জন্যই ইসরায়েলী বাহিনী অভিযান চালিয়েছে বলে ইসরায়েলী সংবাদমাধ্যমগুলো দাবি করেছে। অভিযানের সময় ফিলিস্তিনিরা শহরের প্রধান সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। তারা স্থানীয় হুয়াওয়ারা তল্লাশি চৌকি বন্ধ করে দেয়। সে সময় ইসরায়েলী বাহিনী তাদের উপর হামলা চালায়।
এদিকে পশ্চিম তীরের জেনিন শহরে গ্রেফতার অভিযান চালানোর সময় আহমেদ জারার নামে আরেক যুবককে গুলী করে হত্যা করেছে ইসরায়েল। ওই যুবকের বিরুদ্ধে গত জানুয়ারি মাসের শুরুর দিকে একজন ইহুদি দখলদারীকে হত্যার অভিযোগ এনেছে ইসরায়েলী সেনাবাহিনী। আহমেদ জারার এরপর থেকে পলাতক ছিলেন বলে দাবি করেছে তারা।
গতবছরের ৬ ডিসেম্বর জেরুসালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী স্বীকৃতি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। খুব শিগগিরই মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি। তার এই সিদ্ধান্তে সারাবিশ্বে নিন্দার ঝড় ওঠে। ঘোষণার পরপরই ফিলিস্তিনজুড়ে রাস্তায় নেমে আসেন মুক্তিকামী ফিলিস্তিনীরা। বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলে পড়ে ইসরায়েলী বাহিনী। হতাহত হন বহু বিক্ষোভকারী। তারপরও দমে যাননি মুক্তিকামী মানুষেরা। প্রতিবাদ বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছেন তারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ