ঢাকা, সোমবার 12 February 2018, ৩০ মাঘ ১৪২৪, ২৫ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বগুড়ায় প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত দুই শিক্ষকের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

বগুড়া অফিস: বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের সময় গ্রেফতার দুই শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেছে। বগুড়ার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল (সারিয়াকান্দি) আদালতে মামলাটি চলমান আছে। চলতি এস এস সি ও সমমানের পরীক্ষার চতুর্থ দিনে সারিয়াকান্দিতে এস এস সি পরীক্ষার ইংরেজি ২য় পত্রের প্রশ্ন ফাঁসের সাথে জড়িত জোড়গাছা ফাজিল মাদরাসার শরীরচর্চা শিক্ষক ওমর ফারুক ও রামচন্দ্রপুর স্কুল এন্ড কলেজের বিএম শাখার ইংরেজি শিক্ষক আসাদুজ্জামান আসাদ কে গ্রেফতার করে পুলিশ।
জানা গেছে, ওই ওমর ফারুক ইংরেজি ২য় পত্র পরীক্ষা চলাকালিন সারিয়াকান্দি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় আশপাশে তার এনড্রয়েড মোবাইল ফোনে সংগৃহিত ইংরেজি ২য় পত্র পরীক্ষার প্রশ্নপত্র মোতাবেক উত্তরপত্র লিখে বিভিন্ন কেন্দ্রে সরবরাহের চেষ্টা করেন। পরে কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল কাদের কেন্দ্রের ভিতরে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বাইরের পরিবেশ পর্যবেক্ষণের জন্য বের হন। এসময় ওই শরীরচর্চা শিক্ষক ওমর ফারুকের প্রতি সন্দেহ হলে তাকে আটকের পর তার মোবাইল ফোন খুঁজে ইংরেজি ২য় পত্রের প্রশ্ন দেখতে পান। কেন্দ্রে সরবরাহ করা প্রশ্নপত্রের সাথে তার মোবাইলের প্রশ্নপত্রটি হুবহু মিলে যায়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল কাদের জানান, এই পাবলিক পরীক্ষাকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে প্রশ্নপত্র ফাঁসের খবরের প্রেক্ষিতে আমরা যথাযথ ভাবে কেন্দ্র ও কেন্দ্রের বাইরে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ওমর ফারুকের সন্ধান পাই। ওমর ফারুক দেশে সক্রিয় প্রশ্নপত্র ফাঁসের একটি বড় গ্রুপের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। এটি বড় রকমের অপরাধ হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে শাস্তি না দিয়ে তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলার জন্য পুলিশকে আদেশ দেয়া হয়। এ প্রেক্ষিতে পুলিশ বাদী হয়ে সারিয়াকান্দি থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করেছে। মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সুমন জানান, আটক ওমর ফারুকের কাছে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উপজেলার রামচন্দ্রপুর স্কুল এন্ড কলেজের বিজনেস ম্যানেজমেন্ট (বিএম) শাখার ইংরেজি শিক্ষক আসাদুজ্জামান আসাদের জড়িত থাকার কথা জানান। পরে তাকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।
অভিভাবক-পরীক্ষার্থীসহ আটক ৮
ময়মনসিংহ সংবাদদাতা : ময়মনসিংহে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় গণিত প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে ৫ অভিভাবক ও ৩ পরীক্ষার্থীসহ ৮ জনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আটককৃতরা হলেন- মো. ইসরাত জাহান (২৫), আরিফুল ইসলাম (১৮), রাকিব মিয়া (১৮), রফিকুল ইসলাম (২০), খায়রুল ইসলাম (১৬), জাকারিয়া (১৬), ফজলে রাব্বি রুমি (১৬) ও সৌরভ বর্মন (১৬)। গতকাল রোববার  বেলা ১১টার দিকে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। দুপুরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান স্থানীয় সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারি সকালে ময়মনসিংহ জিলা স্কুল কেন্দ্রে এসএসসির গণিত পরীক্ষা চলাকালে একজন অভিভাবক মোবাইল ফোনের মেসেজের মাধ্যমে প্রশ্নপত্রের উত্তর দিচ্ছিলেন। এ সময় পরীক্ষায় দায়িত্বরত কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল থেকে তাকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওইদিনই সদর উপজেলার দাপুনিয়া এলাকা থেকে আরো ৬ জন এবং বিদ্যাগঞ্জ এলাকা থেকে একজনকে আটক করা হয়। আটক ৮ জনের মধ্যে ৩ জন পরীক্ষার্থী ও ৫ জন অভিভাবক রয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ