ঢাকা, মঙ্গলবার 13 February 2018, ১ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৬ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কিং ব্যাক মোনেম মুন্নার মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক কিং ব্যাক মোনেম মুন্নার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হলো গতকাল সোমবার। প্রয়াত মোনেম মুন্নার গ্রামের বাড়ি নারায়ণগঞ্জে সোনালী অতীত ক্লাব ও মোনেম মুন্না স্মৃতি সংসদ শোকর‌্যালি ও কবর জিয়ারত মাধ্যমে দিনের কার্যক্রম শুরু করে। পরে বাদ মাগরিব নারায়ণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাব আয়োজন করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের।এতে সাবেক ও বর্তমান ক্রীড়াবিদ ও সংগঠকরা ছাড়াও মুন্না ভক্তরা উপস্থিত ছিলেন।উল্লেখ্য ২০০৫ সালে কিডনির জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীদের কাঁদিয়ে মুন্না চলে যান না ফেরার দেশে। আজ মুন্নাকে স্মরন করেননা বাফুফে। মুন্না ভক্তদের কাছে এটা দুঃখের। তারা আক্ষেপের সাথে বললেন, জীবদ্দশায় যে ফুটবল ছিলো মুন্নার ধ্যান-জ্ঞান-সেই ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা ভুলেও উচ্চারণ করে না কিংবদন্তী এই ফুটবলারের নাম। এমন কি মুন্নার মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে স্মরণ করার প্রয়োজনও মনে করেনা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। শুধু তাই নয়, মুন্নার পরিবারের সদস্যদেরও কোন খোঁজ-খবর রাখার দায় মনে করেন না বাফুফের দায়িত্বশীল কর্তাব্যাক্তিরা। যা সত্যিই কষ্টদায়ক। ফুটবলপ্রেমীদের দীর্ঘ দিনের দাবী,বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের যে কোন পাশের একটি গ্যালারীর নামকরণ মুন্নার নামে হউক। কিন্তু একযুগেরও বেশী সময় পেরিয়ে গেলেও এই দাবী পূরণে কোনই আগ্রহ দেখায়নি বাফুফে। ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা ব্যক্তিগত উদ্যোগে ২০০৮ সালে মোনেম মুন্নার নামে ধানমন্ডি লেকের উপর নির্মিত একটি সেতুর নামকরণ করেন। উল্লেখ্য মুন্না জাতীয় দল ছাড়াও ঢাকা আবাহনী,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবে খেলেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ