ঢাকা, শনিবার 17 February 2018, ৫ ফাল্গুন ১৪২৪, ৩০ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৌদি আরবে নতুন করে সেনা পাঠানোর ঘোষণা পাকিস্তানের

১৬ ফেব্রুয়ারি, ডন : বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় নিরাপত্তা চুক্তির আওতায় সৌদি আরবে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়েছে পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। 

গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার বাজওয়া এবং সৌদি রাষ্ট্রদূত নাওয়াফ সাইদ আল মালিকি জেনারেল হেডকোয়ার্টার্সে বৈঠক করেন। জানানো হয়, ‘আঞ্চলিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি’ নিয়ে আলোচনা করতে ওই বৈঠক করা হচ্ছে। বৈঠকের পর আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘পাকিস্তান-সৌদি আরবের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় নিরাপত্তা সহযোগিতার ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানী সেনাদের একটি বহরকে সৌদি আরবে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ প্রদান মিশনে পাঠানো হচ্ছে।

ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি মাসে অনেকটা নীরবে সৌদি আরব সফর করেছেন জেনারেল বাজওয়া। সেখানে প্রায় তিনদিন ছিলেন তিনি। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং কমান্ডার অব গ্রাউন্ড ফোর্সেস লেফটেন্যান্ট জেনারেল প্রিন্স ফাহাদ বিন তুর্কি বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে তার বৈঠকের খবর প্রকাশ করা হয়। দুই মাসের মধ্যে এটি ছিল তার দ্বিতীয়বারের সৌদী সফর।

২০১৫ সালে ইয়েমেনে সংঘাত শুরু হওয়ার পর থেকেই পাকিস্তানী সেনা মোতায়েন চাইছে সৌদি আরব। তবে সৌদি আরবের সে চাহিদা এড়াতে পাকিস্তানকে বেগ পেতে হয়েছে। ইয়েমেন সংঘাতে দেশের ‘নিরপেক্ষ’ অবস্থান উল্লেখ করে পাকিস্তানের পার্লামেন্টে সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাবও পাস হয়েছে। 

গত বছর অবসরপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরিফকে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ দফতর জানিয়ে দিয়েছে, নতুন করে মোতায়েনকৃত এবং আগে থেকে মোতায়েন থাকা প্রায় ১০০০ সেনাকে সৌদি আরবের বাইরে কোথাও মোতায়েন করা হবে না। নতুন করে কতজন সেনাকে মোতায়েন করা হচ্ছে তা জানা যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ