ঢাকা, শনিবার 17 February 2018, ৫ ফাল্গুন ১৪২৪, ৩০ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জয়নাব হত্যা মামলার রায় আজ

১৬ ফেব্রুয়ারি, জিওটিভি : আজ শনিবার পাকিস্তানী শিশু জয়নাব হত্যা ও ধর্ষণ মামলার রায় ঘোষণা করবে দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী আদালত (এটিসি)। পাকিস্তানী সংবাদমাধ্যম জিও টিভির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বৃহস্পতিবার আদালতে দুইপক্ষই তাদের তথ্যপ্রমাণ জমা দিয়েছেন। কোত লাখপাত জেলেই এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই বন্দি রয়েছেন ইমরান আলি। এই ঘটনায় জয়নাবের চাচা ও ভাইসহ মোট ৫৬ জন স্বাক্ষ্য দেন। প্রসিকিউটর জানান, ফরেন্সিক রিপোর্ট ও পলিগ্রাফিক পরীক্ষায়ও প্রমাণ হয়েছে যে ইমরানই জয়নবকে হত্যা করেছে।

বুধবার এটিসি ৯ ঘণ্টার দীর্ঘ শুনানির আয়োজন করে। সেখানে সন্দেহভাজন ও স্বাক্ষীদের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়।  অভিযুক্তের ব্যক্তিগত উপদেষ্টা বিচারককে জানান, ইমরানকে বড় অপরাধী হিসেবে উপস্থাপন করা ঠিক হবে না। কারণ প্রথমদিন থেকেই সে নিজের অপরাধ স্বীকার করে আসছে।        

চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি কোরআন ক্লাস শেষে ফেরার পথে নিখোঁজ হয় পাঞ্জাবের কাসুরের সাত বছরের শিশু জয়নাব আনসারি। বাবা-মা সৌদিতে ওমরাহ পালনে যাওয়ায় কয়েকদিনের জন্য খালার বাড়িতে থাকা শিশুটির মরদেহ ৯ জানুয়ারি শহরের একটি আবর্জনার স্তুপে পাওয়া যায়। ময়নাতদন্তে নিশ্চিত হওয়া যায় ধর্ষণের পর হত্যার শিকার সে। এক বছরের মধ্যে বারোতম শিশু হিসেবে ধর্ষণের শিকার হওয়া জয়নাবের মৃত্যুতে শুরু হয় বিক্ষোভ। কাসুরের বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে দুইজন নিহত হলে পাকিস্তানের বিভিন্ন শহরে সেই বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ফরেনসিক পরীক্ষায় জানা যায়, জয়নাবের শরীরে পাওয়া সন্দেহভাজন অপরাধীর ডিএ্নএ নমুনাটি আগে ধর্ষণের শিকার হওয়া সাতটি শিশুর শরীরেও পাওয়া গিয়েছিলো। গত ২৩ জানুয়ারি ওই নমুনার সঙ্গে এক সন্দেহভাজনের নমুনা মিলে যাওয়ার পর পাঞ্জাবের মূখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা করেন ইমরান আলী হলেন সেই অপরাধী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ