ঢাকা, শুক্রবার 23 February 2018, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কবিতা

নীল বেদনা

তারিক হাসান

 

কেন এসেছিলাম এখানে? 

কোন এক শিশির ভেজা সকাল

আমাকে স্পষ্ট করে বলেছিলো

 যেয়ো না যেয়ো না অন্য কোন খানে ।

থাকো না কিছুদিন 

দুপুরের রোদের ঘ্রাণে

রাতের হিমেল বাতাসে 

মাথা রেখে কুয়াশার সাদা বুকে

নীল বেদনা ছিল কি

দূরবর্তী আকাশের কোণে।

 

একুশের কবিতা

নাগর হান্নান

 

শেষ রাতের মোরগের ডাক

ভোজনরসিক শেয়াল খুবলে খেতে চায়

শিশিরের শব্দের মতো জেগে উঠে মোরগ মুরগি ছানাদল...

 

হুুতুমপেঁচা চক্ষু অফ করে

সূূর্র্যকে বিসর্জন দেয় আমাজান জঙ্গলে

একগুচ্ছ বিলি একরাশ সূর্যমুখীকে সহোদর বানিয়ে

নেমে পড়ে সূর্যালোকের সন্ধানে অতঃপর 

তিতাসের কালোজল তপ্ত হয়ে উঠে

                   চিকচিক হাসে।

 

আমি আঙ্গারের ভেতর 

ভাই হারানোর বেদনা লুকিয়ে

হাঁটতে থাকি সুধীর পায়ে অচেনা গন্তব্যে

বনমোরগ নই খোয়ারের ভেতর ডেকে উঠে কুক্কর কুক ধ্বনি

সূর্র্যের আগমনি বার্তা।

 

 

ফেরারী রাত

মোহাম্মদ এনামুল হক

 

মধ্যরাতে দেউলিয়া স্মৃতিগুলো জেগে ওঠে হঠাৎ

চোখের পর্দা সরালে দেখা যায় অচেনা এক ফেরারী রাত। 

আনকোরা মোবাইলের বোতামে ঘষা দিলে হালকা-বারেক

শহরের ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে বিদঘুটে শহর আরেক। 

এ শহরে বেওয়ারিশ সময় দাঁড়িয়ে থাকে একা

এখানে হাতছানি দেয় শুধু লালসার উপত্যকা।

বাদুড়ের মতো ঝুলে থাকে মানবতা ছেঁড়া বিদ্যুতের তারে

পামির মালভূমি কেঁপে ওঠে বারবার নারী ও শিশুর আর্তচিৎকারে। 

 

পরিবর্তন

আজিম উল্যাহ হানিফ

 

এই সভ্যতার আকাশটাও

দূষিত মনে হয় আজ,

যা তিলে তিলে গড়ে

তোলা হয়েছিল এই সমাজ।

বড্ড অসহায় কেন জানি আমরা

বাধা পাই সবখানে,

এই বাতাস এই হাওয়া

একদিন তো ছিল শস্য-ক্ষেত ধানে।

সময়ের পরিবর্তন আর মানুষের

হানাহানি,

জীবন বাঁচাতে মরিয়া হয়েছে

সবকূল প্রাণী। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ