ঢাকা, শুক্রবার 23 February 2018, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আমাদের মাতৃভাষা

আবুল খায়ের নাঈমুদ্দীন : কাগজে কলমে আমাদের ভাষার নাম বাংলাভাষা। এ ভাষা আমাদের মাতৃভাষা। মায়ের কোল থেকে শেখা ভাষা। এ জন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হয়নি, কোন অক্ষর জ্ঞান থাকতে হয় না। প্রত্যেক শিশুই আপনাআপনি এ ভাষা শিখে ফেলে। শিশু যে দেশে জন্মগ্রহণ করে সেই দেশের নাগরিকত্বও আপনা আপনি পায়।

হাদীস শরীফে আছে “কুল্লু মাউলুন ইউলাদু আলাল ফিতরাত” প্রত্যেক শিশু ফিতরাত বা স্বাভাবিক জীবন নিয়ে জন্মগ্রহণ করে। তারপর তাকে যে জ্ঞান যে ভাষা যে ধর্ম শিক্ষা দেয়া হয় সে তাই শিখে। যে পরিবারের শিশুকে কোন ধর্মই শিক্ষা দেয়া হয়না সেই শিশু কোন ধর্মের অধীনেই পড়ে না। তখন দেখা হয় তার মাতা পিতার ধর্ম কি? সে অনুসারে তাকে মূল্যায়ন করা হয়।

ভাষা খোদার সেরা দান। যে প্রাণী শব্দ দিয়ে কথা বলতে পারে না তাকে শুধু প্রাণী বলা হয়। শুধু মানুষকে বলা হয় বাক সম্পন্ন প্রাণী। আল্লাহ ভাষার তারতম্য দিয়ে পৃথিবীকে রহস্যময় করে দিয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে ভাষাবিদগণ বলেছেন, প্রতি চল্লিশ কিলোমিটার পরপর ভাষার পরিবর্তন হয়। পৃথিবীতে স্বীকৃত ভাষার পরিমাণ প্রায় একশো আটাশি। পৃথিবীর সব ভাষাই আল্লাহর কাছে সমান। ভাষার মাহাত্য মর্মস্পর্ষী। ভাষার কারণে পরষ্পরের মর্যাদা নির্ণয় হয়। প্রত্যেক নবীকে তাঁদের স্থানীয় ভাষায় আসমানী গ্রন্থ প্রদান করেছেন। বাচন ভঙ্গীতেও ভাষার উচ্চ মর্যাদা স্থান পায়। কবি সাহিত্যিকগণ বিভিন্ন ভাবে বাংলা ভাষা সম্পর্কে গুরুত্ব বর্ণণা করেছেন। 

কবি আবদুল হাকীম লিখেছেন,

যেই দেশে যেই বাক্যে কহে নরগণ

সেই বাক্যে বুঝে প্রভু আপে নিরঞ্জন।

 যে দেশে থেকে যে ভাষায়ই কথা বলি না কেন মহান প্রভুর কাছে সব ভাষাই সমান। তিনিই ভাষার মহান স্রষ্টা। তিনি সব  জানেন ও বোঝেন ।

 

কবি রামনিধি গুপ্ত লিখেছেন- 

নানান দেশের নানান ভাষা

বিনে স্বদেশী ভাষা,

পুরে কি মনের আশা?

 

মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ভাষায়- 

হে বঙ্গ, ভা-ারে তব বিবিধ রতন,

তা সবে অবোধ আমি অবহেলা করি,

পরধন লোভে মত্ত করিনু ভ্রমণ।

পরদেশে ভিক্ষাবৃত্তি কুক্ষণে আচরি,

কাটাইনু বহুদিন সুখ পরিহরি।

তিনি আরো লিখেছেন, ‘মাতৃভাষা রূপে খনি পূর্ণ মনিজালে”।

এ রকম আরো লেখা আছে যা ভাষাকে অলঙ্কৃত করেছে। আমাদের বাংলা ভাষার মর্যাদা রক্ষা করতে আমাদের বড় ভাইয়েরা জীবন দিয়েছেন। আমাদের ভাষার মর্যাদা আমাদের রক্ষা করতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ