ঢাকা, শুক্রবার 23 February 2018, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের ভাষা হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া হোক

 

চট্টগ্রাম অফিস : আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন বলেছেন, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের সকল রাষ্ট্র এবং সরকার প্রধান জাতিসংঘে বাংলা ভাষায় ভাষণ দিয়েছেন। তাই জাতিসংঘের ৫টি ভাষার সাথে বাংলা ভাষাকেও জাতিসংঘের ভাষা হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া হোক। তিনি বলেন, আজ একুশের ইতিহাসকে বিকৃতভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে বিভ্রান্ত করার অপপ্রয়াস চলছে। প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দিন বলেন, ১৯৪৭ সালে পাকিস্তানের আবুল কাশেম ‘তমুদ্দুন মজলিস’ এর মাধ্যমে প্রথম বাংলা ভাষার আন্দোলনের সূচনা করেন। বঙ্গবন্ধুসহ আরো অনেক বাংলা ভাষার জন্য কারাবন্দী ছিলেন।

প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন গত বুধবার সকালে আইআইইউসি আয়োজিত মহান একুশের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ অভিমত ব্যক্ত করেন। স্ট্যাডের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ-এর সঞ্চালনায় এবং স্ট্যাডের পরিচালক বিশিষ্ট লেখক আ.জ.ম. ওবায়েদুল্লাহর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু হয়। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান প্রফেসর আহসানুল্লাহ ভূঁইয়া এবং সম্মানীত অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কর্নেল মোঃ কাশেম, পিএসসি (অব.)। অনুষ্ঠানেত সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রো-ভিসি (ইনচার্জ) প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসাইন। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইআইইউসি’র প্রক্টর, বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট এবং শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন বলেন, মহান একুশ আমাদের গৌরবের একটি উজ্জ্বলতম অধ্যায়। মাতৃভাষাকে রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দানের দাবিতে রক্তস্নাত আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন শাশ্বত মূল্যবোধে বিশ্বাসী মানুষেরা, ৫২ সালে শহীদ হয়েছেনও তারাই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ