ঢাকা, শনিবার 24 February 2018, ১২ ফাল্গুন ১৪২৪, ৭ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

শ্রীমঙ্গলে ১১টি বগি লাইনচ্যুত সাড়ে ১৫ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু

সিলেট ব্যুরো : মৌলভীবাজারের চায়ের শহর শ্রীমঙ্গলে গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া ঢাকাগামী আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেস রাত ১টায় লাইনচ্যুত হওয়ায় সিলেটের সাথে ঢাকা ও চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। সাড়ে ১৫ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু হলে সিলেটের সাথে সারাদেশে যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনরায় চালু হয়। এই ট্রেনে সিলেট থেকে ঢাকা যাচ্ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানসহ সহ¯্রাধিক যাত্রী। অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন প্রতিমন্ত্রী মান্নানসহ সহ¯্রাধিক যাত্রী সাধারণ। এই দুর্ঘটনায় সারাদেশের সাথে সিলেটের ট্রেন চলাচল বিচ্ছিন্ন হওয়ায় যাত্রী সাধারণের মধ্যে চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। অবশেষে গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ট্রেন চলাচল পুনরায় শুরু হওয়ায় যাত্রী সাধারণের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তবে বগি লাইনচ্যুত হওয়ায় কোন যাত্রী আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার রাতেই দুর্ঘটনার খবর পেয়ে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ ও রেলওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানকে ট্রেন থেকে নামিয়ে নিরাপদে শায়েস্তাগঞ্জে পৌঁছে দিলে সেখান থেকে প্রাইভেট গাড়ি যোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন বলে গণমাধ্যমকে জানান শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশেকুল হক।

বাংলাদেশ রেলওয়ের সিলেটের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন ম্যানেজার কাজী শহিদুল ইসলাম দৈনিক সংগ্রামকে জানান, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে সাতগাঁও রেলওয়ে স্টেশন অতিক্রমের পর ট্রেনের পুলিং রড ভেঙ্গে লাইনের পয়েন্ট এন্ড ক্রসিংএর কয়েকটি ব্লকের মধ্যে পড়ে ব্লক ভেঙে আন্ডার গিয়ার ভেঙে যায়। ট্রেনের ১১টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে পড়ে। এ সময় রেলের বগিগুলো রেল সড়কের পাথরে আটকে যায়। এ সময় রেল লাইন দুমরে মুছড়ে যায় এবং কাটের স্লিপারগুলো ভেঙে চুরমার হয়ে পড়ে। শুক্রবার বিকাল ৪টায় লাইন মেরামত করা হলে ট্রেন চলাচল পুনরায় চালু হয়।

উপবন ট্রেনের যাত্রী সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মাসুক মিয়া জানান, হঠাৎ করে তীব্র ঝাঁকুনি দিয়ে বগি লাইনচ্যুত হয় এবং দুলতে থাকে। এ সময় যাত্রীদের আর্তচিৎকারে এক ভীতিকর পরিস্থির অবতারণা হয়। স্থানীয় জনগণ এগিয়ে এসে তাদের সহযোগিতা করেন। তবে ট্রেন স্বল্প সময়ের মধ্যেই থেমে যায় এবং বগিগুলো কাত হয়ে পড়ে।

এদিকে উদ্বার কাজের জন্য রাত ৪টায় কুলাউড়া থেকে টুলবাহি একটি ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে। অপর দিকে আখাউড়া থেকে আরও একটি রিলিফ ট্রেন শ্রীমঙ্গলে গিয়ে এদের সহযোগিতা করে ট্রেন যোগাযোগ চালু করতে সহযোগিতা করে বলে জানান, সহকারী প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ