ঢাকা, শনিবার 24 February 2018, ১২ ফাল্গুন ১৪২৪, ৭ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইউরোপা লিগে সমর্থকদের সংঘর্ষে প্রাণ গেল পুলিশের

খেলাধুলা তো আনন্দের জন্য। সেই আনন্দের উপলক্ষ্য যখন হৃদয় বিদারক ঘটনার জন্ম দেয়, তখন সেটা মেনে নেয়া তো কঠিনই। বৃহস্পতিবার ইউরোপা লিগে অ্যাটলেটিকো বিলবাও আর স্পার্তাক মস্কোর মধ্যকার ম্যাচের আগে ঘটে গেল তেমনই হৃদয় বিদারক ঘটনা। অ্যাথলেটিক বিলবাও ও স্পার্তাক মস্কোর দ্বিতীয় লেগের লড়াইটা শুরু হতে তখনও এক ঘন্টার মতো বাকি। এর মধ্যে স্টেডিয়ামের বাইরে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন দুই দলের সমর্থকরা। তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া আর আগুনে লড়াই থামাতে গিয়ে প্রাণ দিতে হয়েছে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে। গত সপ্তাহে রাশিয়ায় প্রথম লেগে স্পাতার্ক মস্কোর বিপক্ষে ৩-১ গোলের জয় পায় বিলবাও। স্পেনে দ্বিতীয় লেগকে সামনে রেখে রাশিয়ান চরমপন্থীরা বিপদ ঘটাতে পারেন, এমন শঙ্কা আগে থেকেই ছিল। শেষ পর্যন্ত সেই শঙ্কাই সত্যি হলো। রাশিয়ার একশর বেশি সমর্থক টিকিট ছাড়াই স্পেনে আসার চেষ্টা করেন বলে জানা যায়। এদের মধ্যে কেউ কেউ আবার ট্রাভেল অর্ডার না মেনেই স্পেনে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেন। গণমাধ্যমের খবর, স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে ২০০ জনের একটি রাশিয়ান চরমপন্থী দল প¬াজা মুয়োয়ার সামনে অবস্থান নেয়। সেখান থেকেই প্রথম প্রতিপক্ষ সমর্থকদের উপর আক্রমণ চালানো হয় বলে জানা যায়। এরপর দুই দল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে পুলিশ। প্রায় ৭০০-র মতো পুলিশ রাস্তায় অবস্থান নিয়েছিল। এরই মধ্যে রাশিয়া এবং স্পেনের সমর্থকরা একে অপরের দিকে বোতল, গ¬াস আর মশাল ছুঁড়ে মারতে থাকে। মারপিট থামাতে বিলবাও পুলিশ একটা সময় বাধ্য হয়েই লাঠিচার্জ করে। এতে পুলিশের ওপরও চড়াও হন সমর্থকরা। মারামারির এক পর্যায়ে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে রাস্তায় পড়ে যান এক পুলিশ। হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। জানা গেছে, তার মাথায় চরমপন্থীদের ছুঁড়ে দেয়া কিছু একটা আঘাত করেছিল। তবে এমন মারামারির পরও ইউরোপা লিগের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছে ভালোভাবেই। বৃহস্পতিবার রাতে ফিরতি লেগে ২-১ গোলে জিতেও বিদায় নিয়েছে স্পার্তাক মস্কো। দুই লেগ মিলিয়ে ৪-৩ ব্যবধানের জয়ের সুবাদে শেষ ষোলোর টিকিট পেয়েছে বিলবাও। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ