ঢাকা, সোমবার 26 February 2018, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৪, ৯ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নওগাঁয় বাড়ি থেকে বের হওয়ার ৩ দিন পর ডোবা থেকে নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

 

আহাদ আলী, নওগাঁ সংবাদদাতা : নওগাঁয় কাজের জন্য বাড়ি বের হওয়ার ৩ দিন পর একটি ডোবা থেকে যুবকের ডুবন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নওগাঁ শহরের বাঙ্গাবাড়ীয়া মহল্লায় বিউটি ছাত্রাবাসের পাশে একটি ডোবা থেকে রোববার বিকেল ৩টায় ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। 

নওগাঁ সদর মডেল থানার একটি নিখোঁজ সম্পর্কিত সাধারণ ডাইরী’র সূত্র ধরে পুলিশ কর্তৃক সংবাদ পেয়ে পরিবারের সদস্যরা এসে ঘটনাস্থলে এসে লাশ সনাক্ত করেছে। নিহত যুবকের নাম সুমন (৩২)। সে নওগাঁ শহরের ইদুর বটতলী মন্ডলপাড়া এলাকার নুর ইসলামের পুত্র।  নিহতের পিতা নুর ইসলাম জানান সুমন রাজমিস্ত্রির জোগানদার হিসেবে কাজ করতো। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকাল ৮টায় বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অফিসের আশে পাশে কোন এক বাসায় কাজ করার নাম করে বাড়ি থেকে বের হয়। সর্বশেষ ঐদিন বেলা ১১টায় মোবাইল ফোনে বাবার সাথে কথাও হয়েছে। কিন্তু সন্ধ্যায় সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করার পর অবশেষে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি নিখোঁজ সম্পর্কিত সাধারণ ডাইরি লিপিবদ্ধ করে।

এদিকে রোববার বেলা অনুমান সাড়ে ৩টার দিকে বিউটি ছাত্রাবাসের একজন বোর্ডার জানালা দিয়ে ময়লা ফেলতে গিয়ে ডুবন্ত লাশ দেখতে পায়। কেবলমাত্র দুই হাতের কব্জি এবং দুই পা পানি থেকে বের হয়েছিল। মাথা পুরোপুরি কাদার মধ্যে ডুবন্ত ছিল। নওগাঁ সদর মডেল থানায় সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসাপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। 

পারিবারিক ভাবে দায়েরকৃত সাধারণ ডাইরিতে উক্ত সুমনের মৃগী রোগ আছে বলে উল্লেখ করা হয়। কিন্ত যে ডোবায় লাশটি পাওয়া গেছে তার ধারে কাছে যাওয়ার মত কোন রাস্তা বা ব্যবস্থা নাই এবং ওই ডোবার পানি খুবই নোংরা। কাজেই প্রাথমিকভাবে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে সেখানে লাশ অতি সন্তর্পনে ফেলে রাখা হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। নওগাঁ সদর থানার পুলিশ কর্মকর্তা এস আই আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন এই মৃত্যুর ব্যাপারে কোন না কোন রহস্য আছে তবে ময়না তদন্ত করলেই আসল ঘটনা জানা যাবে। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে। 

চাল ভর্তি ট্রাক ছিনতাই : নওগাঁ শহরের ট্রাক টার্মিনাল এলাকার দেওয়ান ফিলিং স্টেশনের পাশে থেকে সাভারের অভিমুখে যাওয়ার জন্য অপেক্ষামান চাল ভর্তি ট্রাক ছিনতাই হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ৪/৫ জনের ছিনতাইকারী চক্র ট্রাক টার্মিনাল এলাকায় দেওয়ান ফিলিং স্টেশনের পাশে অবস্থানরত চাল ভর্তি ট্রাকের জানালার কাঁচ ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে নওগাঁ থেকে ট্রাকটি নিয়ে বগুড়া অভিমুখে চলে যায় বলে নৈশ প্রহরীরা জানিয়েছে। 

নওগাঁ সদর মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা গেছে, পার-নওগাঁ আড়তদার পট্টির ব্যবসায়ী রতন কুমার সাহার একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১৪৩৯০৯) শুক্রবার বিকেলে নওগাঁর মহাদেপুর উপজেলার রঘুনাথ কুন্ডুর মিল থেকে ৩শ’ বস্তা স্বর্ণা চাল লোড করে নওগাঁয় আসে। শুক্রবার বিকেলে ট্রাকের চালক স¤্রাট হোসেন ওই এলাকার ট্রাক প্রহরায় নিয়োজিত নৈশ প্রহরী মন্টু মিয়াকে ট্রাক বুঝে দিয়ে বাড়িতে চলে যায়। শনিবার ভোরে ট্রাকটি চাল নিয়ে সাভারের তারা মোল্লা রাইস মিলের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া কথা ছিল। 

রাত তিনটার দিকে ট্রাকের মালিক মোবাইল ফোনে জানতে পারে যে, নওগাঁ শহরের ট্রাক টার্মিনাল এলাকার দেওয়ান ফিলিং স্টেশনের পাশে থেকে তার চাল বোঝাই ট্রাকটি ছিনতাইকারী চক্র ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। সাথে সাথে বিভিন্ন স্থানে মোবাইল ফোনে যোগযোগ করে এবং আশে পাশের জেলাগুলোতে খোঁজ করেও গতকাল শনিবার বিকেল পর্যন্ত চাল বোঝাই ট্রাকের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।  শহরের ট্রাক টার্মিনাল এলাকার দেওয়ান ফিলিং স্টেশনের পাশে ট্রাক প্রহরায় নিয়োজিত নৈশ প্রহরী মন্টু মিয়া জানান, রাতে আড়াইটার দিকে সে দেখে ৪/৫ জন অচেনা মানুষ ট্রাকের ভিতর বসে আছে। সে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেরই তারা ট্রাকটি দ্রুতগতিতে বগুড়া অভিমুখে চলে যায়। 

গতকাল শনিবার বিকেলে ট্রাকের মালিক রতন কুমার সাহা এ ব্যাপারে অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনকে অভিযুক্ত করে নওগাঁ সদও মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। 

ট্রাকের মালিক রতন কুমার সাহা জানান, টাটা মডেলের ওই ট্রাকের মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা আর চালের মূল্য ৬ লাখ টাকা। দীর্ঘদিন পর নওগাঁ শহর থেকে আবারো চালসহ ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনায় চাল ব্যবসায়ী ও ট্রাক ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ