ঢাকা, বুধবার 28 February 2018, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৪, ১১ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খালেদাকে জেলে রাখেন জনপ্রিয়তা বাড়বে!

সংসদ রিপোর্টার : ‘খালেদা জিয়া জেলে থাকলে নাকি বিএনপির জনপ্রিয়তা বাড়বে। তাহলে খালেদা জিয়াকে  জেলেই রাখুন, নইলে তো জনপ্রিয়তা আটকে যাবে, তাই যদি হয় কোর্টে যাবেন না, জামিন চাইবেন না’ এমন মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।  গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষনের উপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বক্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে তিনি এমন মন্তব্য করেন।  বর্তমান সরকারের প্রভূত উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেছেন, বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশ প্রতিবেশী অনেক দেশের তুলনায় উন্নয়নের সূচকে এগিয়ে রয়েছে। দেশ আজ ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত হয়েছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না এলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হতো না, জাতী কলঙ্কমুক্ত হতো না বলে মন্তব্য করেন তোফায়েল আহমেদ।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার দুর্নীতি সুনির্দিষ্টভাবে প্রমাণিত। টাকা এসেছে এতিমের জন্য, টাকা চলে গেল জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টে। যে ট্রাস্ট্রের চিহ্নও নাই। এখন আদালত রায় দিয়েছে। সেটা নিয়ে সরকারের কী করার আছে?
‘খালেদা জিয়া জেলে থাকায় বিএনপির জনপ্রিয়তা দিনে ১০ লাখ করে বাড়ছে’ মওদুদ আহমদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমার অবাক লাগে একজন শিক্ষিত লোক কীভাবে বলেন, তার নেত্রী খালেদা জিয়া যতদিন জেলে থাকবেন বিএনপির জনপ্রিয়তা তত বাড়বে। এমনকি প্রতিদিন আওয়ামী লীগের ১০ লাখ ভোট কমবে। তাই যদি হয় কোর্টে যাবেন না, জামিন চাইবেন না। খালেদা জিয়াকে জেলে রাখেন। জেল থেকে বের হলে তো আবার জনপ্রিয়তা আটকে যাবে।
মওদুদ আহমদের উদ্দেশ্যে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এই মওদুদ আহমদ ও আমরা ১৯৯৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলনে এক সঙ্গে গ্রেফতার হয়েছিলাম। আমাকে পাঠিয়ে দিয়েছিল রাজশাহী আর মওদুদ সাহেবকে ময়মনসিংহে। জেলখানায় ফ্লোরে ছিলাম। মওদুদ সাহেবও ছিলেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ আজ সব ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেত্রীত্বে এগিয়ে যাবে। আমরা জঙ্গিমুক্ত হয়েছি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ প্রতিবেশী ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে অনেক সুচকে এগিয়ে রয়েছে। আইটি খাতে ভবিষ্যতে আমরা ৫ বিলিয়ন ডলার আয় করতে পারবো। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না এলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হতো না, জাতী কলঙ্কমুক্ত হতো না। এসময় তিনি দেশের বিভিন্ন সূচকে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তরিত হতে চলেছি। দেশ ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ