ঢাকা, বুধবার 28 February 2018, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৪, ১১ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগ বন্ধ করে বিক্ষোভ

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগের পথ বন্ধ করে বিক্ষোভ করেছেন ইন্টার্নী চিকিৎসকরা। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এটিএম এনামুল জহিরের বিচার ও নিজেদের বিরুদ্ধে থাকা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে তারা এ বিক্ষোভ করেন।
মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ইন্টার্নী চিকিৎসকরা জরুরি বিভাগের প্রবেশ পথে গিয়ে বসে পড়েন। এতে বন্ধ হয়ে যায় জরুরি বিভাগে যাওয়ার পথ। পরে দুপুর দেড়টার দিকে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার গিয়ে ইন্টার্নীদের শান্ত করেন। পরে তারা জরুরি বিভাগের সামনে থেকে সরে যান। এদিকে জরুরি বিভাগ বন্ধ করে ইন্টার্নীদের এই বিক্ষোভ চলাকালে হাসপাতালে আসা রোগীরা পড়েন ভোগান্তিতে। বিক্ষোভের এই এক ঘণ্টায় একজন রোগীও হাসপাতালের ভেতরে ঢুকতে পারেননি। এদের মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত এক রোগীকে জরুরি বিভাগের সামনে থেকে ফেরত নিয়ে গিয়ে নগরীর লক্ষ্মীপুর মোড়ের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করতে দেখা যায়। রামেক ইন্টার্নী চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি মীর্জা কামাল হোসেন জানান, সমস্যা সমাধানের দাবিতে তারা এই বিক্ষোভ করেছেন। আওয়ামী লীগ নেতারা তাদের সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন। তাই তারা কর্মবিরতি ছেড়ে ওয়ার্ডে ফিরেছেন। উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে রাবি শিক্ষক এনামুল জহির রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মেয়ের জন্য ওষুধ কিনে নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে হাসপাতালের ভেতর তার এক নারী ইন্টার্নী চিকিৎসকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এ সময় ইন্টার্নী চিকিৎসকরা তাকে মারধর করেন। এর জেরে  রাজশাহীর আদালতে রামেকের ৮ ইন্টার্নী চিকিৎসের বিরুদ্ধে মামলা হয়। আগামী ১ মার্চ মামলার শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ