ঢাকা, বৃহস্পতিবার 1 March 2018, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৪, ১২ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রতারণা ও অনিয়মের অভিযোগে শাস্তি পাচ্ছে শতাধিক এজেন্সি

মিয়া হোসেন: হজ্বযাত্রীদের সাথে প্রতারণা ও অনিয়মের কারণে শাস্তির মুখোমুখি হতে যাচ্ছে প্রায় শতাধিক হজ্ব এজেন্সি। এসব এজেন্সিকে শাস্তি দেয়ার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তিনটি কমিটি তদন্ত করেছে। ইতোমধ্যে কমিটিগুলো তাদের তদন্ত সম্পন্ন করে রিপোর্ট জমা দিয়েছে। শিগগিরই এ রিপোর্ট ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রকাশ করা হবে। এদিকে গতকাল ধর্মমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে চলতি বছরে হজ্ব কার্যক্রমে অংশ নেয়ার জন্য ৭৭৪টি এজেন্সিকে অনুমোদন দিয়ে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।
মন্ত্রণালয় সূত্রমতে, ২০১৭ সালের হজ্ব কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করে ৬৩৫টি বেসরকারি হজ্ব এজেন্সি।হজ্বযাত্রীর সাথে প্রতারণা ও বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ে বহুসংখ্যক বেসরকারি হজ্ব এজেন্সি। দেশে এবং সৌদি আরবে হজ্ব পালনকালে তারা এসব অনিয়ম করে। এ ধরনের মোট ২৪৫টি এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্তে তিনটি কমিটি গঠন করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। কমিটিগুলো দফায় দফায় অভিযুক্ত এজেন্সিগুলোর প্রতিনিধি এবং অভিযোগকারী ব্যক্তিদের ডেকে শুনানি গ্রহণ করে। সম্প্রতি কমিটিগুলোর তদন্ত শেষ হয়েছে। ইতোমধ্যে কমিটিগুলো তাদের তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করেছে। তিনটি কমিটি তদন্ত করে ৬৯টি এজেন্সির বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রকাশ করেছে। বাকী ১৭৬টি এজেন্সির শাস্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করবে। ইতোমধ্যে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৫১টি এজেন্সিকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে, ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করা হয়েছে ৮টি এজেন্সিকে। আর ১০ এজেন্সির বিষয়ে আদালতে মামলা থাকায় বা অন্য এজেন্সির সাথে দ্বন্দ্ব থাকায় তাদের হাবের মাধ্যমে ও আইনগতভাবে মোকাবেলা করার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এদিকে শতাধিক এজেন্সিকে বিভিন্ন শাস্তি দেয়ার জন্য সুপারিশ করেছে তিনটি কমিটি। এসব শাস্তির মধ্যে রয়েছে লাইসেন্স বাতিল, লাইসেন্স স্থগিত, জামানত বাজেয়াপ্তসহ বিভিন্ন শাস্তির সুপারিশ রয়েছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (হজ) হাফিজ উদ্দিন বলেন, প্রায় আড়াই শ’ এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল। তিনটি কমিটি তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সম্পন্ন করেছে। শিগগিরই দণ্ডপ্রাপ্ত এজেন্সির তালিকা পত্রিকার মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে। এ ছাড়া সতর্ক করা ও অব্যাহতি প্রাপ্তদের তালিকা হজ্ব পোর্টালে প্রকাশ করা হচ্ছে। তিনি জানান, দ-প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশের পর বৈধ এজেন্সির তালিকাও প্রকাশ করা হবে।
এদিকে গত সোমবার মন্ত্রিসভায় হজ্ব নীতিমালা ও হজ্ব প্যাকেজ অনুমোদন করা হয়েছে। সেই সাথে প্যাকেজ চূড়ান্ত করা হয়েছে। এতে বিমান ভাড়া বাবদ ১৪ হাজার টাকা বাড়ানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে হজ্ব এজেন্সিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)। হজ্ব প্যাকেজ-১ এ ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা, প্যাকেজ-২ এর খরচ হবে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা।
হজ্ব নিবন্ধন : ২০১৮ সালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধিতদের মধ্য থেকে ১৬ হাজার ৭৩ ক্রমিক পর্যন্ত নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন। এ ছাড়া বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধিতদের মধ্য থেকে তিন লাখ ৫২ হাজার ২৯২ ক্রমিক পর্যন্ত নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন। তবে এ পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধন করেছেন সাত হাজার ৮৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধন করেছেন দুই লাখ ৪০ হাজার ৩৪৯ জন।
জানা যায়, এ বছর মোট এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজে¦ যেতে পারবেন। এর মধ্যে সরকারিভাবে সাত হাজার ১৯৮ জন আর বেসরকারিভাবে যাবেন এক লাখ ২০ হাজার জন। গতবারও একই সংখ্যক হজ্বযাত্রী হজ্ব করার সুযোগ পেয়েছিলেন। এবার সৌদি এয়ারলাইন্স ও বাংলাদেশ বিমান  অর্ধেক ভাগাভাগি করে হজ্বযাত্রী পরিবহন করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ