ঢাকা, বৃহস্পতিবার 1 March 2018, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৪, ১২ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

র‌্যাগিং : শাবির দুই ছাত্র আজীবনের জন্য বহিষ্কার ॥ ১৯ জনকে শাস্তি

সিলেট ব্যুরো : সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি) ছয় নবীন শিক্ষার্থীকে অর্ধনগ্ন করে রাতভর র‌্যাগিং দেওয়ার অভিযোগে “সিভিল এন্ড ইনভায়রন মেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দুই শিক্ষার্থী আশিক আহমেদ হিমেল ও মো. হামিদুর রহমান রঙ্গনকে আজীবন বহিষ্কার করা সহ আরো ১৯ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়াও বিগত ২০১৬-১৭ সেশনের ভর্তি পরীক্ষার জালিয়াতির ঘটনায় “ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং” বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আল-আমিন এবং সহপাঠীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের রাসেল পারভেজকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়। গতকাল বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ এর সভাপতিত্বে ২০৭ তম সিন্ডিকেট সভায় শৃঙ্খলা কমিটির সুপারিশক্রমে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
এদের মধ্যে সিভিল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দুইজন মোঃ মাহমুদুল হাসান ও শাহ রিয়াজ জামানকে  ২ বছরের জন্য বহিষ্কারসহ ১০ হাজার টাকা জরিমানা, ইসতিয়াক আহমেদকে এক বছরের জন্য বহিষ্কারসহ ১০ হাজার টাকা জরিমানা, ৫জন (বাবলু মার্মা, আদ্রী দাস, মোঃ আবু রেদোয়ান খান,উমর আলম সরকার, পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের রনি সরকারকে) ৬ হাজার টাকা জরিমানা ও সতর্কীকরণ, ৯ জন (আহমেদ হাসিব, দেবাশীস বসু, মাহবুব ইব্রাহিম, মোহাম্মদ শাহিদুল আলম, মোহাম্মদ আল-আমীন, দীপ্ত তরু, আশিকুল এনাম, রাইসুল বারি সিফাত, মোঃ সজীবুর রহমান) কে ৩হাজার টাকা জরিমানা ও বাকী দুইজন (নাজমুস সাকীব ও মোঃ শফিকুল ইসলাম সতর্কীকরণ করা হয়।
এদিকে সিন্ডিকেট সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সিভিল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যারয়ের বঙ্গবন্ধু চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস বন্ধ করে দেয়। এতে সাধারণ শিক্ষার্থীসহ, শিক্ষক, কর্মকর্তারা দুর্ভোগে পড়েন।
সিলেট মহানগর ছাত্র জমিয়ত
হরিপুর মাদরাসার ছাত্র শহীদ মুজাম্মিল এর খুনীদের গ্রেফতার করে ফাঁসির দাবিতে গতকাল বুধবার বাদ জোহর ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ সিলেট মহানগর শাখার উদ্যোগে নগরীতে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি সিলেট নগরীর সোবহানীঘাট পয়েন্ট থেকে বের হয়ে বন্দরবাজার, কোর্ট পয়েন্ট, জিন্দাবাজার পয়েন্ট, জেল রোড প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় সোবহানীঘাট পয়েন্টে এক সমাবেশে মিলিত হয়। সিলেট মহানগর ছাত্র জমিয়তের আহবায়ক হাফিজ শাব্বির রাজির সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক মিজানুর রহমান মামুনের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন শায়খুল হাদীস মাওলানা আব্দুল মালিক মুবারকপুরী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় জমিয়ত নেতা মাওলানা আহমদ কবির, মাওলানা আব্দুল মুছব্বির, মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক সরকার, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মাওলানা আহমদ ছগির, মাওলানা তোফায়েল আহমদ উসমানী, ছাত্র জমিয়তের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব এম. বেলাল আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। সভায় বক্তারা, জৈন্তাপুরে মাজার পুজারীদের হামলায় মাদরাসার ছাত্র শহিদ মুজ্জামিলের খুনী এবং নিরীহ নিরপরাধ আলেম উলামা ও শান্তিপ্রিয় আহত শতাধিক মুসল্লীদের উপর হামলার ্র নিন্দা ও শহীদের খুনী সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ