ঢাকা, শুক্রবার 2 March 2018, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৩ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন মেয়র খোকনসহ ৫০ অতিথি

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকার পরীবাগে মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানের মঞ্চ নেতাকর্মীদের ভারে ভেঙে পড়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিবাগ মসজিদ সংলগ্ন নালীর পাড়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে এলাকাবাসী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের মতবিনিময় সভা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে কেউ আহত হননি।

মেয়রের ওই অনুষ্ঠান শুরু হয় বেলা ১১টার দিকে। এক পর্যায়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও মেয়রের সঙ্গে মঞ্চে উঠে পড়েন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মেয়র স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ শুনে যখন জবাব দিচ্ছিলেন, তখনই হঠাৎ হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে মঞ্চ।

পরে মেয়র খোকন দাঁড়িয়ে বলেন, “আল্লাহর রহমতে আমি ঠিক আছি। কোনো সমস্যা হয়নি। এটি দুর্ঘটনাবশত হয়েছে।” সবাই ধাতস্ত হলে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আরও কিছুক্ষণ কথা বলেন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। বেলা ১টার দিকে সেখান থেকে তিনি চলে যান।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানায় , ২১ নম্বর ওয়ার্ডে ‘জনতার মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। ওয়ার্ডের বাসিন্দারা বিভিন্ন ভোগান্তি নিয়ে অভিযোগ তুলছিলেন মেয়রের কাছে। তাৎক্ষণিকভাবে সমাধানও দিচ্ছিলেন তিনি। হঠাৎ নাগরিকের ভোগান্তির সমাধান দিতে দিতে বিড়ম্বনায় পড়লেন মেয়র নিজেই। মুহূর্তের মধ্যে মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন মেয়রসহ ৫০ জন অতিথি।

জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার পর প্রত্যেক মাসে একটি করে ওয়ার্ডে এ ধরনের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নাগরিকের সমস্যার কথা শোনেন মেয়র খোকন। গতকাল বেলা ১১টায় পরিবাগে ঢাকার ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিল এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় লোকজন। তৈরি করা হয় বেশ বড়সড় একটি মঞ্চ। ওয়ার্ড কাউন্সিলরের লোকজনেরাই এই মঞ্চটি তৈরি করেন।

যথাসময়ে প্রধান অতিথি মেয়র সাঈদ খোকন মঞ্চে ওঠেন। চলছিল আলোচনা, শুনছিলেন অভিযোগ। হঠাৎ করে হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে মঞ্চ। পড়ে যান সবাই।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর এম এ হামিদ খান বলেন, ‘এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে আমার জন্য এটা লজ্জাজনক। তবে কেউ আহত হননি।’

এ ঘটনার পর দ্রুত অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। মেয়র তাঁর কার্যালয়ে চলে যান।

চিকুনগুনিয়াকে এবার ঝাঁটা

ঢাকা থেকে মশাবাহিত রোগ চিকুনগুনিয়াকে ঝাঁটা দিয়ে বের করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ।  পরিবাগের নালিপাড়ায় 'জনতার মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি' শীর্ষক ওই  অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, গত বছরের মতো এবারও এপ্রিলে আগাম বৃষ্টি হলে নগরবাসীকে অনুরোধ করবো যেন আপনারা বাড়ির আঙিনা ও ফুলের টব পরিষ্কার রাখেন। কারণ, চিকুনগুনিয়া হয় এডিস মশার কামড়ে। এই মশা জমে থাকা পানিতেই জন্ম নেয়।

 মেয়র বলেন, আমাদের সচেতন থাকতে হবে যেন চিকুনগুনিয়া জেঁকে বসতে না পারে। চিকুনগুনিয়াকে মোকাবিলা করতে হবে। আমরা প্রস্তুত রয়েছি। আমরা এবার চিকুনগুনিয়াকে ঝাঁটা দিয়ে বিদায় করতে চাই।

অনুষ্ঠানে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে এই এলাকার সনি বিল্ডিংয়ের সামনে একজন ট্রাফিক পুলিশ চাইলে মেয়র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন এবং বলেন, আগামীকাল থেকে সেখানে ট্রাফিক থাকবে। পান্থপথ মোড়ের কাছে থাকা ৫টি ময়লার কন্টেইনার সরানোর বিষয়ে ব্যবস্থা নিতেও মেয়র নির্দেশ দেন।

 মেয়র বলেন, দক্ষিণ সিটিতে এখন ৮৫ ভাগ রাস্তা চলাচলের উপযোগী। আগামী বছর থেকে ৯৫ ভাগ রাস্তা চলাচলের উপযোগী হবে। প্রতিটি সড়কেই এলইডি জ্বলছে। শহর পরিষ্কার রাখতে আপনাদের সহযোগিতা চাই।

এই অনুষ্ঠানের মাঝখানে হঠাৎ ভেঙে পড়ে মঞ্চ। তবে এরপরও মেয়র অনুষ্ঠান চালিয়ে  যান।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অ্যাডভোকেট এম এ হামিদের সভাপতিত্বে এতে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী খান মোহাম্মদ বিলাল, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম চৌধুরী, প্রধান বর্জ্য কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ